শিরোনাম

সবুজ বাংলা

থিয়েটার মুরারীচাঁদের মঙ্গল শোভাযাত্রায় হাওরে ফসলহানির প্রতিবাদ

সিলেট, ১৫ এপ্রিল: পহেলা বৈশাখের মঙ্গল শোভাযাত্রায় হাওরে ফসলহানির প্রতিবাদMahdy জানিয়েছে থিয়েটার মুরারীচাঁদ। শুক্রবার সকাল ১০টায় এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে এই মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজন করে কলেজ প্রশাসন।
এতে অংশ নিয়ে সুনামMahdy 2গঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় হাওরে অকাল বন্যায় ফসল হানির প্রতিবাদ জানানো হয়। মঙ্গল শোভাযাত্রায় থিয়েটারের কয়েকজন কর্মী ফসল হারানো কয়েকজন কৃষক সেজে একটি ঠেলাগাড়িতে চড়ে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের পূনবার্সনের দাবি জানান।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি সুনামগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে ফসল রক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে ১৪০টি হাওরের ফসল তলিয়ে গেছে। এতে হাজার কোটি টাকার ফসলহানি ঘটেছে। ফসল হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন সুনামগঞ্জের কৃষকরা।

লন্ডনে এডভোকেট আবু জাহির এমপিকে সংবর্ধনা প্রদান।। মন্ত্রী করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান

লন্ডনঃ এক সময় যারা বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি আখ্যায়িত করেছিল, তারাই এখন বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে অবাক। শিক্ষা স্বাস্থ্য, সহ বিভিন্ন সেক্টরে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। আটত্রিশ বছরে অতীতের বিভিন্ন সরকারের সময়ে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়েছে মাত্র চার হাজার মেগাওয়াট। আট বছরে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ক্ষমতাসীন হওয়ার পর দেশে বিদ্যুতের উৎপাদন হয়েছে ১২ হাজার মেগাওয়াট। এ মন্তব্য বিদ্যুৎ, জ্বালানী, খনিজসম্পদ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য  হবিগঞ্জ-লাখাই আসন থেকে নির্বাচিত এভোকেট আবু জাহির এমপি‍‍’র। Abu jahir mp=1তিনি বলেন, দেশে আর বিদ্যুতের সমস্যা থাকবে না। সরকার মহেশখালিতে আরো একটি কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প হাতে নিয়েছে এখান থেকে পাওয়া যাবে আরো ১২ হাজার মেঘাওয়াট। যোগাযোগ এবং শিক্ষা ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, বিগত জোট সরকারের সময় মোবাইল ফোন ছিল দুস্পাপ্য তখন  গরীবের জন্যে একটি মোবাইল ফোন  ছিল স্বপ্ন, কল করা এবং রিসিভ করতেও মিনিট প্রতি উভয়কে গুনতে হয়েছে ১২ থেকে ১৫ টাকা, আর এখন মাত্র কুড়ি পয়সায় কল করা যায়। তিনি বলেন  সরকার স্নাতক পর্যন্ত মেয়েদের শিক্ষা ফ্রি করে দিয়েছে, স্কুল এবং কলেজ পর্য্যায় উপবৃত্তি চালু করা হয়েছে।  সকলের জন্য স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে চালু করা হয়েছে ক্লিনিক। তিনি তার নিজ এলাকার উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে বলেন এখন আর হবিগঞ্জ পিছিয়ে নেই । এই সরকারে সময় হবিগঞ্জ সরকারী  বৃন্দাবন কলেজকে বিশ্ববিদ্যায়লয়ে উন্নীত করা হয়েছে কয়েকটি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু করা হয়েছে, এটি হবে একটি পূর্ণাঙ্গ বিশ্বদিব্যালয়। এবছর থেকে হবিগঞ্জ মেডিকেল কলেজে ভর্ভি শুরু হবে,  হবিগঞ্জ বাসীর জন্যে এটি আনন্দের সংবাদ অনেক জেলাতে মেডিকেল কলেজ নেই আমরা পেয়েছি।  তিনি বলেন হবিগঞ্জ একটি শিল্পাঞ্চলে পরিণত হয়েছে নারায়নগঞ্জ এবং গাজীপুরের পরে তৃতীয় স্থানে রয়েছে হবিগঞ্জ। তিনি বলেন হবিগঞ্জের শিল্পাঞ্চলে শুধূ প্রাণ কোম্পেনীতে ১৮ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হয়েছে এর মধ্যে ৭০% স্থানীয় লোক।  গতকাল ৪এপ্রিল বিকেলে বৃটেন প্রবাসী হবিগঞ্জ জেলাবাসী আয়োজিত সম্বর্ধনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আধুনিক হবিগঞ্জের উন্নয়নের রূপকার আবুজাহির এমপি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে, বাংলাদেশ একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত চলেছে, ঠিক এই মুহূর্তে আমাদের অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে একটি মহল ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। আমাদের সকলকে দেশি বিদেশি ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।

ইস্ট লন্ডনের নিডা হাউজে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ নাট্যভাস্কর ড. মুকিদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং চৌধুরী ফয়েজুর রহমান মোস্তাক এডভোকেট এবং অজিত লাল দাসের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সম্বর্ধনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা আবু ইউসুফ চৌধুরী, শিক্ষাবিদ ড. হাসনিন চৌধুরী, সাংবাদিক-গবেষক মতিয়ার চৌধুরী, মির্জা আওলাদ বেগ, কমিউনিটি নেতা সালাউদ্দিন তাহের,  ফুল মিয়া, ইঞ্জিনিয়ার বাবু শুসান্ত দাস গুপ্ত। সভায় বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক জুয়েল রাজ, সাংবাদিক শাহ রাসেল, আয়োজক কমিটির পক্ষে আলামিন মিয়া, দেওয়ান সৈয়দ আব্দুর রব, ছাত্র নেতা শাহ ফয়েজ, যুক্তরাজ্য যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমদ আলী, তুহিন চৌধুরী, তমিম চৌধুরী, গোলাম জিলানী সুহেল, সমসু মিয়া, হিফজুর রহমান চৌধুরী, ফরহাদুল ইসলাম চৌধুরী, গিয়াস উদ্দিন, কামাল উদ্দিন,  আব্দুল কাদির, লন্ডন মহানগর যুবলীগের তারেক আহমদ, আজমল হোসেন এমরান, এনামুল হক, শাহ সুমাইয়া প্রমুখ। এমপি আবু জাহির বলেন তার নির্বাচনী এলাকায় ইতিমধ্যেই ৫টি নতুন কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। বিশেষ করে লাখাই এবং হবিগঞ্জের প্রতিটি ইউনিয়নে একটি করে কলেজ প্রতিষ্টা করা হবে। তিনি বলেন নবীগঞ্জের দীগলবাক ইউনিয়নকে কুশিয়ারার ভাঙ্গন থেকে রক্ষা করতে উদ্যোগ নিবেন। সভায় বক্তরা বলেন দেশ স্বাধীনের পর থেকে হবিগঞ্জ থেকে সব সময়ই একজন মন্ত্রী ছিলেন। বক্তারা  হবিগঞ্জের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আবু জাহির এমপিকে মন্ত্রী করতে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহবান জানান।

জঙ্গিরা সারা দেশে একযোগে হামলার পরিকল্পনা করছে : হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র

রাকিল হোসেন নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ)সংবাদদাতা: নবীগঞ্জে জনপ্রতিনিধিদের সাথে “জঙ্গিবাদ ও আইনশৃংখলা” বিষয়ক মতবিনিময় সভায় হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র বলেছেন, নবীগঞ্জের কোন এলাকায় যাতে জঙ্গিরা আস্তনা গড়তে না পারে সে জন্য বাসার মালিক ও পার্শ্ববর্তী এলাকার লোকদেরকে ভাড়াটিয়ার যাবতীয় তথ্যাদি সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে। যদি কোন ভাড়াটিয়াদের চলাফেরায় কারো কোন ধরণের সন্দেহ হয় তাহলে সাথে সাথে বিষয়টি আইনশৃংখলা বাহিনীকে অবগত করতে হবে। পুলিশ সুপার বলেন, এলাকার কোন লোক যদি নিখোঁজ হয় বিষয়টি পুলিশকে অবগত করবেন। যারা জঙ্গি সম্পৃক্ততার সাথে জড়িয়ে গেছে তাদের খোঁজে বের কনে ধরতে হবে এবং নতুন করে যাতে আর কেউ জঙ্গিবাদের জড়াতে না পারে সে ব্যাপারেও সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। নব্য জঙ্গিদের এখনই ধরতে হবে যাতে পরবর্তিতে দেশের কোন জায়গায় হামলা বা হামলার পরিকল্পনা করতে পারেনা।
গত ৪ এপ্রিল মঙ্গলবার সকালে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনর্চাজের আয়োজনে  উপজেলায় পরিষদের হল রুমে “জঙ্গিবাদ ও আইন শৃংখলা” বিষয়ক মতবিনিময় সভায় হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাজিনা সারোয়ার এর সভাপতিত্বে ও সহকারী পুলিশ  সুপার (সার্কেল) রাসেলুর রহমানের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডাঃ মুশফিক হোসন, নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমা বেগম, থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আতাউর রহমান, পৌরসভার মেয়র ছাবির আহমেদ চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী। সভায় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সদস্য এডভোকেট সুলতান মাহমুদ, পৌরসভার প্যানেল মেয়র এটিএম সালাম, ইউপি চেয়ারম্যান ইজাজুর রহমান, জাবেদ আলী, সত্যজিত দাশ, আশিক মিয়া, বজলুর রশিদ, আবু সাইদ এওলা, মুহিবুর রহমান হারুন, আলী আহমেদ মুসা, ছাইম উদ্দিন, জাবেদুল আলম চৌধুরী সাজু, আবু সিদ্দিক, নজরুল ইসলাম, পৌর কাউন্সিলর বাবুল চন্দ্র দাশ, আলা উদ্দিন, আব্দুস ছালাম, সুন্দর আলী, প্রাণেশ দেব, জাকির হোসেন, জায়েদ চৌধুরী, কবির মিয়া, নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক মতিউর রহমান মুন্না  প্রমুখ। এছাড়াও প্রতি ইউনিয়নের সাধারন ওয়ার্ডের সদস্য ও সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উক্ত মতবিনিময় সভায় পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র আরো বলেন, জঙ্গিরা ২০০৫ সালের মতো সারা দেশে একযোগে হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছে। তারা বিভিন্ন কৌশলে ধীরে ধীরে প্রতি এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে নেটওর্য়াক তৈরী করার চেষ্টা করছে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে যারা জঙ্গি তৎপরাতা চালাচ্ছে তারা দেশের লোকাল জঙ্গি। তারা আইএস বা আন্তর্জাতিক কোন জঙ্গি নয়। তবে বাংলাদেশে হামলার পরিকল্পনা এটা আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র। এর সাথে জড়িত দেশের অনেক মীর জাফর, বাংলাদেশে মীর জাফরের অভাব নেই। যারা ক্ষমতার বাহিরে তারা সরকারের পতন চায় তারা দেশের উন্নয়ন চায় না।
পুলিশ সুপারের দেয়া তথ্য মতে, যে ভাবে জঙ্গিদের চিনবেন:
বাসা ভাড়া নিয়ে সাথে খুব কম আসবাব পত্র থাকে, তাদের বাসায় টিভি থাকে না কারণ, জঙ্গিরা বলে টিভি দেখা হারাম, জঙ্গিরা কারো সাথে মিশে না, কারো বাসায় তারা যায় না, কাউকে তাদের বাসায় আনে না, এলাকার কারো সাথে তাদের কোন যোগাযোগ নেই, কোন সামাজিক অনুষ্ঠানে তাদের উপস্থিতি নেই, জঙ্গিরা তাদের বাচ্চাদের বাসার বাহিরে যেতে দেয় না, খেলাধুলা বা অন্যান্য বাচ্চাদের সাথে মিশতে দেয় না, জঙ্গিদের বাসার দরজা, জানালা সব সময় বন্ধ থাকে এবং পর্দা লাগানো থাকে, তাদের বাসায় কোন কাজের লোক থাকে না, মাস শেষ হওয়ার আগেই বাসা ভাড়া দিয়ে দেয়, যাতে মালিক তাদের বাসার ভিতরে যেতে না পারে।
তাই সবাইকে এ ব্যাপারে সচেতন থাকতে হবে। যদি কোন লোকের চলাফেরায়  সন্দেহ হয় তাহলে বিষয়টি আইনশৃংখলা বাহিনীকে জানানোর জন্য অনুরোধ করেন পুলিশ সুপার।

নবীগঞ্জে ডাকাতি।। আক্রমনে নিহত ১ আহত ৩ ।। পূর্ববিরোধের জের বলে আশংকা

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা : নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে অবস্থিত মাওলানা মস্তফা আহমদের বাড়িতে ফের ডাকাত দল হানা দিয়েছে। এ সময় ডাকাতদের হামলায় গৃহকর্তার ছেলে জামিল আহমদ (২৫) খুন হয়েছেন এবং গৃহকর্তাসহ তার আরো দুই ছেলেকে আহত করে ডাকাতরা নগদ টাকা লুট করে নিয়ে গেছে । শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। লাশ উদ্বার করে পোস্টমর্টেম রিপোর্টের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের মাতা আছিয়া বেগম বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জন কে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। খুনের ঘটনায় এলাকায় আতংক বিরাজ করছে।
স্থানীয় সুত্রে জানায়, উপজেলার মংলাপুর গ্রামের মাওলানা মস্তফা আহমদের বাড়িতে গত শুক্রবার রাত ৩ টার দিকে ৭/৮ জনের একদল মুখোশধারী ডাকাতদল বাড়ির কলাপসিবল গেইটের তালা ও ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় গৃহকর্তা মাওলানা মস্তফা আহমদের শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে ডাকাতরা তাকে এলোপাতাড়ি মারধোর শুরু করলে অন্য রুমে ঘুমিয়ে থাকা তার ছেলে জামিল আহমদ (২৫), মওদুদ আহমদ (২২) ও মাসুদ আহমদ (১৬) টের পেয়ে জেগে উঠেন। এক পর্যায়ে তারা বাবাকে রক্ষা করতে ডাকাতদের আটকাতে চেষ্টা চালায়। এতে সংঘবদ্ধ ডাকাতদল ক্ষীপ্ত হয়ে তাদেরকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপাতে থাকে। প্রায় আধ ঘন্টা সময় ডাকাতদের সাথে তাদের তিন ভাইয়ের ধস্তাধস্তি চলে। এক পর্যায়ে ডাকাতরা পিছু হটে বাড়ির উঠানে চলে যায়। এ সময় উঠান থেকে ডাকাতরা সংঘবদ্ধ হয়ে আবারো হামলা চালায়। হামলার সময় জামিলের শরীরে ছু্রি দিয়ে  আঘাত করে ডাকাতরা। এতে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন জামিল। তখন সহোদর ভাইয়েরা ভাইকে উদ্ধার করতে গেলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়। ঘটনার খবর পেয়ে গ্রামের লোকজন এগিয়ে এসে তাদেরকে উদ্বার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক জামিল আহমদকে মৃত ঘোষণা করেন। অপর আহত ২ সহোদর ও গৃহকর্তা ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছেন। এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি এস এম আতাউর রহমান জানান, ঘটনার খবর পেয়ে সাথে সাথে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে পূর্ববিরোধের জের ধরে ঘটনাটি সংগঠিত হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে পুলিশ জানায়।
উল্লেখ্য, গত ২০১৬ সালের ৭ ডিসেম্বর তারিখে ওই একই বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি সংগঠিত হয়েছিল। এ সময় ডাকাতদল বাড়ির লোকজনকে অস্ত্রের মুখে  জিম্মি ও মারপিট করে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্করসহ কয়েক লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়েছিলো। এর পর থেকে গ্রামের পক্ষ থেকে পাহারাদার রাখা হয়। কিন্তু পাহারাদার থাকা সত্ত্বেও এবার এই ডাকাতি সংগঠিত হয়েছে।

নবীগঞ্জে শীর্ষ ডাকাত গ্রেফতার

রাকিল হোসেন নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা: নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জ ফাঁড়ীর পুলিশ শীর্ষ ডাকাত ও একাধিক মামলার পলাতক আসামী তোয়েল মিয়া (৩২)-কে গ্রেফতার করেছে। ধৃত তোয়েল উপজেলার বড় ভাকৈর গ্রামের ফটিক মিয়ার পুত্র । পুলিশ জানায় তোয়েলের নেতৃত্বে উপজেলার নবীগঞ্জ-কাজীর বাজার সড়কসহ বিভিন্ন সড়কে রোড ডাকাতি সংঘটিত হতো। ইতিমধ্যে অনেক ডাকাতকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত রবিবার রাতে ইনাতগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ীর এসআই ধর্মজিৎ সিনহা সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কাজীর বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করেন। এসআই ধর্মজিৎ সিনহা সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,ধৃত তোয়েল মিয়া এলাকায় চিহিৃত ডাকাত। তার বিরুদ্ধে নবীগঞ্জ থানায় একাধীক মামলা রয়েছে। ইতিমধ্যে চিহিৃত ডাকাতদের গ্রেফতার করা হয়েছে। বর্তমানে আইন শৃংখলা ভাল। তোয়েলকে নবীগঞ্জ থানার মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নবীগঞ্জ করগাঁও ইউপি আওয়ামী লীগের নেতার পিতার মৃত্যূতে শোক

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি: নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা ও করগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শৈলেন্দ্র চন্দ্র দাশ এর পিতা ভূপেন্দ্র চন্দ্র দাশ (৭৩) গত শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় হৃদ যন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইহলোক ত্যাগ করে পরলোকে গমন করেছেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও নবীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী। তিনি এক বিবৃতিতে বলেন, মৃত ভূপেন্দ্র চন্দ্র দাশ এলাকার একজন বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগি ছিলেন। তিনি মুক্তাহার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য ছিলেন।তাঁর মৃত্যূতে অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে।শোক স্বতপ্ত পরিবারের প্রতি পরিবারকে সমবেদনা প্রকাশ করে বলেছেন ভূপেন্দ্র চন্দ্র দাশ(৭৩) যেন স্বর্গীয় হন। তার মৃত্যূতে আরো শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুল, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী, নবীগঞ্জ উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি নারায়ন রায়, সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক উত্তম কুমার পাল হিমেল, নবীগঞ্জ পৌর আওয়ামীলীগের সম্পাদক নির্মলেন্দু দাশ রানা প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

নবীগঞ্জ উপজেলা আইনশৃংখলা কমিটির সভা।। নিহত জঙ্গি মামা হুজুরের সহযোগি আছে কি না খুঁজে দেখার সিদ্ধান্ত

উত্তম কুমার পাল হিমেল, নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জ উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটির মাসিক সভা গতকাল সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নবীগঞ্জ-বাহুবল এলাকার সংসদ সদস্য এম,এ মুনিম চৌধুরী বাবু। নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাজিনা সারোয়ার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন নবীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী, সরকারী কমিশনার( ভূমি) জীতেন্দ্র কুমার নাথ, নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আতাউর রহমান, নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী, নবীগঞ্জ মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি মোঃ ইয়াওর মিয়া, বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম সুমন, নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি এম এ আহমদ আজাদ, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি নারায়ন রায়, নবীগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুর রাজ্জাক, নবীগঞ্জ উপজেলা জাপার আহবায়ক ডাঃ শাহ আবুল খায়ের,  মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সেলিনা আক্তার, উপজেলা প্রকৌশলী সৈয়দুর রহমান প্রমুখ।

সভায় কমিটির সদস্য সদ্য প্রয়াত নবীগঞ্জ উপজেলা জাপার সেক্রেটারী মাহমুদ চৌধুরীর মৃত্যূতে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। নবীগঞ্জের হুজি নেতা নিহত জঙ্গী তাজুল ইসলাম ওরফে মামা হুজুরের সহযোগিরা কোথাও আছে কিনা খতিয়ে দেখার সিন্ধান্ত গৃহিত হয়। নবীগঞ্জ উপজেলার মহা সড়কে দখলকৃত যাত্রী ছাউনি সওজ এর অবৈধ জায়গা দখল ও ডেবনা নদী দখল করে বিল্ডিং নির্মান কার জায়গা উদ্ধারের জন্য আহবান জানানো হয়। দেবপাড়ায় হিন্দু সংখ্যা লঘুদের উপর হামলার জন্য নিন্দা জানিয়ে পুলিশ প্রশাসনেকে  ব্যবস্থা গ্রহনের আহবান জানানো হয়। নবীগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতিকে নতুন সদস্য হিসাবে অন্তর্ভূক্তির জন্য বক্তাগণ আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান।

সন্ত্রাসী হামলায় সিএনজি মালিক গুরুতর আহত।। আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী হাসপাতালে প্রেরণ, সিএনজি চলাচল বন্ধ, এলাকায় উত্তেজনা

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: নবীগঞ্জ উপজেলার সঈদপুর বাজার সিএনজি শ্রমিক দীঘলবাক ইউপির সিএনজি শ্রমিকদের মধ্যে বিরোধ তুঙ্গে। সন্ত্রাসী হামলা করে হারুন মিয়া (৪০) নামের এক সিএনজি মালিককে রক্তাক্ত জখম করেছে কতিপয় সিএনজি শ্রমিকরা। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে, তার অবস্থার অবনতি ঘটলে গতকাল সোমবার বিকেলে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এঘটনায় দু’দল সিএনজি শ্রমিকদের মধ্যে  উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় রক্ষক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন এলাকাবাসী।
জানা যায়, উপজেলার সঈদপুর বাজার সিএনজি (অটোরিক্সা) স্ট্যান্ডের ইনাতগঞ্জ রোডে সিএনজি ম্যানাজারি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল দীঘলবাক ইউনিয়নের কামারগাঁও, সাইনবোর্ড সহ ঐ এলাকার সিএনজি শ্রমিকদের। এ নিয়ে সম্প্রতি কয়েক দফা হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে   পূর্বে সামাজিক বিচারে বিরোধ নিষ্পত্তি হয়। দীঘলবাক ইউনিয়নের দুই শ্রমিক নেতা হাজী মদরিছ মিয়া ও কামাল হাসানকে সঈদপুর স্ট্যান্ডের অন্যান্য ম্যানেজারের সাথে যৌথ দায়িত্ব পালনের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। এমনকি তারা দীর্ঘ ৭ মাস দায়িত্ব পালন করেন। ইদানিং সঈদপুর বাজার স্ট্যান্ডের শ্রমিকরা ঐ দুই ব্যক্তিকে ম্যানেজার হিসাবে দায়িত্ব পালন করতে বাধা নিষেধ করেন। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। এরই জের ধরে গত রোববার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে দীঘলবাক ইউনিয়নের রায়ঘর গ্রামের সিএনজি মালিক ও মোঃ আব্দুল হেকিম উল্ল¬ার পুত্র হারুন মিয়া তার দুই পুত্র সঈদপুর বাজার ফাজিল মাদ্রাসার ছাত্র ইমন ও রিমনের মাসিক বেতন দিয়ে বাড়ি ফেরার পথিমধ্যে উমরপুর গ্রাম ও ইনাতগঞ্জ শেরপুর সড়ক থেকে তাকে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে সিএনজি শ্রমিক গেন্দু মিয়া, দিলাল, শাহানাজ, সজিব, আজিুজুর রহমান ও মর্তুজা মিয়ার নেতৃত্বে হারুন মিয়ার উপরে একদল শ্রমিক অতর্কিত হামলা করে   অস্ত্র দিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। হামলাকারীদের কবল থেকে বাঁচতে গিয়ে একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয়ার চেষ্টা করলেও বাড়ি থেকে ধরে এনে তারে অমানুষিক নির্যাতন করেন হামলাকারীরা। এই ঘটনায় ইনাতগঞ্জ সঈদপুর সড়কে সিএনজি চলাচল বন্ধ রয়েছে।

ফেঞ্চুগঞ্জ কল্যাণ সমিতির সাধারণ সভা ও দোয়া মাহফিল

লন্ডন প্রতিনিধি: জনসেবামূলক কাজ করে যাওয়া ফেঞ্চুগঞ্জ কল্যাণ সমিতির সাধারণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। অতি সম্প্রতি প্রয়াত কাজী আব্দুল মুহিত জাকির খানের মৃতুতে শোক প্রকাশ ও আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয় এতে। গত ১২ মার্চ পূর্ব লন্ডনের স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে আয়োজিত এই সভার আয়োজন করা হয়। সংগঠনের সভাপতি ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর খান।
এতে বক্তারা জানান, দীর্ঘ প্রায় ৩০বছর পূর্বে এম এইচ খান হুরু মিয়ার তত্ত্বাবধানে প্রতিষ্ঠিত এ সংগঠন মৃত ব্যক্তিদের লাশ দেশে পাঠানোসহ তাদের পরিবারের সাহায্য সহযোগিতার উদ্দ্যেশে প্রতিষ্ঠিত হলেও এতিম, অসহায় ও শিক্ষার মান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে ফেঞ্চুগঞ্জ কল্যাণ সমতি। অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহর থেকে সদস্যরা অংশ নেন। দুঃস্থ অসহায় মানুষের কল্যাণে এগিয়ে আসার আহবান জানান বক্তারা।
এতে বক্তব্য রাখেন আক্তার আহমেদ, মুজিবুর রহমান, আলী আহমদ খান, কাজী মহসিন, হাফিজুর রহমান, আব্দুল গাফফার লিলু মিয়া, মুরাদ চৌধুরী, কাজী আব্দুল কোরাইশ, মোঃ আলমগীরসহ সংগঠনের অন্যান্য সদস্যরা।
আলোচনা শেষে মুনাযাত পরিচালনা করেন মাওলানা আব্দুল হক।

নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ)সংবাদদাতাঃ আগামী ২২ মার্চ সিলেট আলীয় মাদ্রাসা মাঠে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিভাগীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে ১৮ মার্চ শনিবার বিকেলে নবীগঞ্জ সরকারী জে কে মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরীর পরিচালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সাবেক মন্ত্রী আলহাজ্ব দেওয়ান ফরিদ গাজীর পুত্র শাহ নেওয়াজ মিলাদ গাজী, বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী, জেলা পুরষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এডভোকেট সুলতান মাহমুদ।
সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী ওবায়দুল কাদের হেলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমদ মিলু, রিজভী আহমেদ খালেদ, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও কুর্শি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী আহমদ মুছা, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজাহিদ আলম, সাধারণ সম্পাদক নির্মুলেন্দু দাশ রানা,  উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য রাকিল হোসেন, ইনাতগঞ্জ আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মালিক, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, দীঘলবাক আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম হোসেন রব্বানী, গৌতম দাশ প্রমুখ। এছাড়াও উপজেলা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

Scroll To Top

Design & Developed BY www.helalhostbd.net