শিরোনাম

সবুজ বাংলা

নবীগঞ্জে হিন্দুু পল্লীতে হামলা, আহত ৮॥ থানায় অভিযোগ

নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা: নবীগঞ্জের পল্লীতে হিন্দু  পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে বাড়ীঘর ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় এক যুবলীগ নেতা ও সাবেক ইউপি সদস্য’র বিরুদ্ধে। গতকাল রবিবার সকাল ১০টার দিকে নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের সিট ফরিদপুর গ্রামের সুত্রধর পল্লীতে এ ঘটনা ঘঠে। হামলায় নারীসহ ৮ জন আহত হয়েছেন। আহতদের নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি ও প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় নবীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের সিট ফরিদপুর গ্রামের সুত্রধর পল্লীর রতিশ সূত্রধর গংদের সাথে ভূমি দখল ও নির্বাচনে পরাজীত হওয়ার জেরে দীর্ঘ দিন ধরে বিরুধ চলে আসছিল সাবেক ইউপি সদস্য হারুন মিয়া ও তার ভাই যুবলীগ নেতা শামিম মিয়ার। গেল ইউপি নির্বাচনে হারুন মিয়াকে ভোট না দেওয়ায় যুবলীগ নেতা শামিম ও সাবেক ইউপি সদস্য হারুন মিয়া গংরা হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনকে  বাড়ি ঘর ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য বেশ কিছু দিন ধরে হুমকি দিয়ে আসছিল বলেও অভিযোগে উল্লেখ করেন। গত শনিবার বিকেলে রতিশ সূত্র ধরের আত্মীয় ও সুত্রধর পল্লীর লোকজনকে রাস্তা দিয়ে যাতে যাওয়া আসা না করে এজন্য নিষেধ করেন শামিম গংরা। কিন্তু উক্ত রাস্তাটি ডিসি খতিয়ানের। শনিবার বিকেলে রতিশ সূত্রধরের আত্মীয় পিন্টু সুত্রধর ওই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় বাধা দেন শামিম মিয়া। এনিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। সুত্রধর পল্লীর লোকজন জানান, শনিবার বিকেলের ঘটনার জের ধরে গতকাল রবিবার সকাল ১০টার দিকে সুত্রধর পল্লীতে গিয়ে হামলা চালায় সাবেক ইউপি সদস্য হারুন মিয়া ও তার ভাই যুবলীগ নেতা শামিম মিয়ার নেতৃত্বে একদল লোক। এ সময় তারা সুত্রধর পল্লীর বাড়ি ঘর ভাংচুর করে। এসময় তাদের হামলায় আহত হন মহিলাসহ ৮জন । এদের মধ্যে রতিশ সুত্র ধর (৫৫), সুরঞ্জিত সুত্র ধর (৩০), পিন্টু সুত্র ধর (৩০), দিপালি সুত্র ধর (৪৫) কে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এবং অপর আহত চিত্ররঞ্জন সুত্র ধর (৫০), কাঞ্চন সুত্র ধর (৩০), নিল মনি সুত্র ধর (৪০), বিরেন্দ্র সুত্র ধর (৪৫)সহ অন্যান্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ ঘটনায় যুবলীগ নেতা শামিম মিয়া ও সাবেক ইউপি সদস্য হারুন মিয়াসহ ৫জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে নবীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। নির্বাচনে ভোট না দেওয়াকে কেন্দ্র করে এভাবে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের উপর  হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন,বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নবীগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি নারায়ন রায়,কালীপদ ভট্টাচার্য্য,বাদল কৃষ্ণ বনিক,সাধারন সম্পাদক প্রভাষক উত্তম কুমার পাল হিমেল, দপ্তর সম্পাদক অমলেন্দু সুত্রধরসহ সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ ঘটনার সাথে জড়িত দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।

শেভরনে কর্মচারিদের গুম-খুনের হুমকি: প্রতিবাদে বেনামে লিফলেট বিতরণ

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি: হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জে বিবিয়ানা গ্যাস ফিল্ডে কর্মরত কর্মচারিদের ন্যায্য শেয়ারের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে একটি সিকিউরিটি সার্ভিস কোম্পানির উর্ধ্বতন কর্মকর্তা কর্মচারিদের গুম-খুনের হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সেনট্রি সিকিউরিটি সার্ভিসের ফিল্ড সিকিউরিটি ম্যানেজার মুমিনুল ইসলাম

সেনট্রি সিকিউরিটি সার্ভিসের ফিল্ড সিকিউরিটি ম্যানেজার মুমিনুল ইসলাম

জানা যায়, বিগত কিছু দিন পূর্বে শেভরন বাংলাদেশ বিবিয়ানায় কাজ সমাপ্তির ঘোষণার পর গ্যাস ফিল্ডে কর্মরত কর্মচারি কর্মকর্তাগণ নিয়োগকালীন চুক্তি অনুসারে শেভরনের নিকট ৫ শতাংশ হারে লভ্যাংশ পরিশোধের দাবি জানান। শেভরন এক পর্যায়ে কর্মকর্তাদের ৩ শতাংশ হারে এবং সাধারণ কর্মচারিদের ২ শতাংশ হারে লভ্যাংশ পরিশোধে সম্মত হয় এবং প্রত্যেক কর্মকর্তা কর্মচারির ব্যক্তিগত একাউন্ট নাম্বার শেভরনকে সরবরাহ করার নির্দেশ প্রদান করে।

শেভরনের এই ঘোষণার পর বিবিয়ানায় সিকিউরিটি সরবরাহকারী সেনট্রি সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেডের পক্ষ থেকে তাদের নিয়োগকৃত সিকিউরিটিদের ডেকে কোম্পানির একাউন্টে লভ্যাংশ জমা করার জন্য আদেশ দেয়া হয়। এ সময়, সিকিউরিটিতে কর্মরত অনেকেই এর প্রতিবাদ করে শেভরনের লভ্যাংশের নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ তাদের নিজস্ব একাউন্টে জমা দেয়ার দাবি জানান। এরপর, বিবিয়ানা গ্যাস ফিল্ডে কর্মরত সেনট্রি সিকিউরিটি সার্ভিসের ফিল্ড সিকিউরিটি ম্যানেজার মুমিনুল ইসলাম সাধারণ কর্মচারিদের নানা ভাবে হুমকি দেয়া শুরু করেন। সেনট্রি সিকিউরিটি সার্ভিসের ঢাকা অফিসের দু’জন এবং মুমিনুল ইসলাম বিবিয়ানায় কর্মরত সিকিউরিটিদের আলাদা আলাদা করে ডেকে নিয়ে জানান, বর্তমানে দেশে যেভাবে গুম খুন হচ্ছে, বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে তাদের পরিণতিও সে রকম হতে পারে। মুমিনুল ইসলাম এবং সেনট্রি সিকিউরিটি সার্ভিসের উর্ধতন দু’জনের সাথে আলোচনা করার পর বিবিয়ানায় কর্মরত সিকিউরিটিদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ ব্যাপারে নাম প্রকাশ না করার শর্তে, সিকিউরিটির অনেকেই জানিয়েছেন, সেনট্রি সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেডের অধীনে তাঁদের নিয়োগ হওয়ায় তাদের বেতনাদি আসে এই কোম্পানির একাউন্ট থেকে। কিন্তু, শেভরন বিবিয়ানায় কাজ সমাপ্তি ঘোষণা করলে, শেভরনের প্রতিশ্রুতি মোতাবেক লভ্যাংশ সরাসরি কর্মরতদের ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাব নম্বরে জমা হওয়ার কথা। কর্মরতরা জানান, শেভরনের প্রদেয় লভ্যাংশ সেনট্রি সিকিউরিটি সার্ভিসের একাউন্টে যাতে জমা হয়, সে কারণেই মুমিনুল ইসলাম কর্মরতদের হুমকি-ধামকি ও ভয় ভীতি প্রদর্শন করছেন। এমন কি, তিনি নারায়নগঞ্জসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে সংগঠিত গুম-খুনের কথা উল্লেখের পাশাপাশি মামলা-হামলা এবং হয়রানি করা হবে বলেও হুমকি দেন।

মুমিনুল ইসলামের এই হুমকির পর বিবিয়ানা গ্যাস ফিল্ড এলাকার আশেপাশে তাঁর দুর্নীতি ও হুমকি ধামকির বিবরণ দিয়ে লিফলেট সাঁটা হয়েছে। লিফলেট বিতরণের খবর পেয়ে মুমিনুল ইসলাম তাঁর কিছু অনুগত কর্মীদের দিয়ে সব লিফলেট খুলে নিয়ে আসেন এবং এ ব্যাপারে জড়িতদের দেখে নেবেন বলে হুমকি দেয়া হয়।

শেভরনের লভ্যাংশ সিকিউরিটিতে এবং অন্যান্য পদে কর্মরতদের ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাব নম্বরে জমা দেয়ার এ দাবি নিয়ে বিবিয়ানা এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ফুলতলীতে নবীগঞ্জের বকুল নিহত ।। আজ জানাজা

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতাঃ সিলেট জকিগঞ্জে আল্লামা ফুলতলী (রহ.) এর ঈসালে সাওয়াব মাহফিলে খাবার সংগ্রহের সময় সৃষ্ট ভীড়ের চাপে পদপিষ্ঠ হয়ে নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের বনগাঁও গ্রামের মৃত রইস উদ্দীন এর পুত্র হুমায়ুন কবীর বকুল (৩৭) নিহত হয়েছে। নিহত বকুলের মৃত দেহ বর্তমানে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে ময়না তদন্ত শেষে ওই দিনই বিকেলে ৪টার সময় গ্রামের বাড়ি বনগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে নামাজে জানাযা শেষে পারিবারিক কবর স্থানে তাকে দাফন করা হবে। নিহত বকুলের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে আল্লামা ফুলতলী (রহ.) জীবিত থাকাবস্থাতেই হুমায়ুন কবীর তাঁর মুরিদ ছিলেন। তিনি সব সময়ই সেখানে যাওয়া আসা করতেন। বিগত ১২/১২বছর ধরে তার নিজ গ্রাম বনগাঁওয়ে লতিফিয়া ইসলামী সমাজ কল্যাণ পরিষদ নামে একটি সংগঠন রয়েছে। তিনি ছিলেন উক্ত সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ফুলতলী (রহ.)-এর নবম মৃত্যুবার্ষিকী  উপলক্ষ্যে গত ১৫ জানুয়ারি জকিগঞ্জের ছাহেব বাড়ি সংলগ্ন বালাই হাওরে ঈসালে সাওয়াব মাহফিলে সংগঠনের অন্য সদস্যদের সাথে রোববার সকালে মাহফিলে যোগদান করেন হুমায়ুন কবীর বকুল। বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে লাখ লাখ লোকজন ঈসালে সাওয়াব মাহফিলে উপস্থিত হয়। রবিবার গভীর রাতে খাবার সংগ্রহ সময় সৃষ্ট ভীড়ের কারণে পদপিষ্ঠ হয়ে বকুল এর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। এই অনাকাঙ্খিত মৃত্যুতে তার পরিবারসহ নবীগঞ্জের বনগাঁও গ্রামে সুখের ছাঁয়া নেমে এসেছে ।
ব্যক্তি জীবনে বকুল ৩মেয়ে, ১ছেলের জনক। তিনিই ছিলেন পরিবারের এক মাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি।  নিহত বকুলের ভাতিজা আব্দুল মুহিত সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আজ সকালে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়না তদন্ত শেষে ওই দিনই বিকেল চারটায় বনগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে নামাজে জানাযা শেষে তাকে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হবে। তিনি জানান, নিহত বকুল ছিলেন মুদি দোকান ব্যবসায়ী। তাঁর মৃত্যুতে পরিবারের নেমে এসেছে অন্ধকার।

ছাতকের গোবিন্দগঞ্জে ইংলিশ ‍মিডিয়াম স্কুল ব্রিজ একাডেমির শিক্ষার্থীদের সাফল্য

ছাতক (সুনামগঞ্জ) থেকে প্রতিনিধিঃ শহর থেকে দূরে  বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল  সুনামগঞ্জ জেলার ছাতকের গোবিন্দগঞ্জে অবস্থিত একমাত্র ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল ব্রিজএকাডেমীর শিক্ষার্থীদের  সাফল্যে আনন্দিত শিক্ষক অভিবাক  এবং এলাকাবাসী। ২০১২ সালে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও রাজনীতিক আইয়ুব করম আলী মাতৃভূমির টানে ব্রিটেন থেকে দেশে গিয়ে এই প্রতিষ্ঠানটির যাত্রা শুরু করেন। বিদ্যালয়টির প্রথম ব্যাচ পিইসি পরীক্ষায় ২৩জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে ১৮জন এ প্লাস, ৫জন বি এবং সি গ্রেড পেয়ে কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হয়েছে। স্কুলের পক্ষ থেকে কৃতি শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করতে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

ব্রিজ একাডেমির চেয়ারম্যান আইয়ূব করম আলী বলেন, এই ফলাফলই প্রমাণ করে সুযোগ থাকলে গ্রামাঞ্চলের শিক্ষার্থীরাও শহরের শিক্ষার্থীদের চেয়ে ভাল করতে পারে। শিক্ষা ক্ষেত্রে গ্রাম এবং শহরের বৈষম্য দূর করতেই আমরা এই বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করি।

ফুলতলীতে নবীগঞ্জের বকুল নিহত॥ আজ জানাযা

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা:সিলেট জকিগঞ্জে আল্লামা ফুলতলী (রহ.) এর ঈসালে সাওয়াব মাহফিলে খাবার সংগ্রহের সময় সৃষ্ট ভীড়ের চাপে পদপিষ্ঠ হয়ে নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের বনগাঁও গ্রামের মৃত রইস উদ্দীন এর পুত্র হুমায়ুন কবীর বকুল (৩৭) নিহত হয়েছে। নিহত বকুলের মৃত দেহ বর্তমানে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে ময়না তদন্ত শেষে ওই দিনই বিকেলে ৪টার সময় গ্রামের বাড়ি বনগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে নামাজে জানাযা শেষে পারিবারিক কবর স্থানে তাকে দাফন করা হবে। নিহত বকুলের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে আল্লামা ফুলতলী (রহ.) জীবিত থাকাবস্থাতেই হুমায়ুন কবীর তাঁর মুরিদ ছিলেন। তিনি সব সময়ই সেখানে যাওয়া আসা করতেন। বিগত ১২/১২বছর ধরে তার নিজ গ্রাম বনগাঁওয়ে লতিফিয়া ইসলামী সমাজ কল্যাণ পরিষদ নামে একটি সংগঠন রয়েছে। তিনি ছিলেন উক্ত সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ফুলতলী (রহ.)-এর নবম মৃত্যুবার্ষিকী  উপলক্ষ্যে গত ১৫ জানুয়ারি জকিগঞ্জের ছাহেব বাড়ি সংলগ্ন বালাই হাওরে ঈসালে সাওয়াব মাহফিলে সংগঠনের অন্য সদস্যদের সাথে রোববার সকালে মাহফিলে যোগদান করেন হুমায়ুন কবীর বকুল। বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে লাখ লাখ লোকজন ঈসালে সাওয়াব মাহফিলে উপস্থিত হয়। রবিবার গভীর রাতে খাবার সংগ্রহ সময় সৃষ্ট ভীড়ের কারণে পদপিষ্ঠ হয়ে বকুল এর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। এই অনাকাঙ্খিত মৃত্যুতে তার পরিবারসহ নবীগঞ্জের বনগাঁও গ্রামে সুখের ছাঁয়া নেমে এসেছে ।
ব্যক্তি জীবনে বকুল ৩মেয়ে, ১ছেলের জনক। তিনিই ছিলেন পরিবারের এক মাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি।  নিহত বকুলের ভাতিজা আব্দুল মুহিত সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আজ সকালে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়না তদন্ত শেষে ওই দিনই বিকেল চারটায় বনগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে নামাজে জানাযা শেষে তাকে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হবে। তিনি জানান, নিহত বকুল ছিলেন মুদি দোকান ব্যবসায়ী। তাঁর মৃত্যুতে পরিবারের নেমে এসেছে অন্ধকার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল : এডভোকেট আবু জাহির এমপি

রাকিল হোসেন, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা: হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি  এডভোকেট আলহাজ্ব আবু জাহির এমপি বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসলে মানুষ পেট ভরে ভাত খেতে পারে। আওয়ামী লীগ সরকার বছরের প্রথম দিনে শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যে বই বিতরণের পাশাপাশি কৃষকদের মধ্যে বিনামূল্যে সার, বীজ বিতরণ করে যাচ্ছে। এছাড়াও প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদে এখন তথ্য সেবা, কৃষি সেবাসহ আরোও বিভিন্ন উন্নয়নমূলক সেবার ব্যবস্থা করে দিয়েছে। তিনি বলেন, আগে হবিগঞ্জ জেলা বললে আশে-পাশের জেলার মানুষ চিনতো না। এখন এই হবিগঞ্জ জেলা শিল্প নগরী হিসেবে পরিচিতি লাভ করছে। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসলে চারিদিকে শুধু উন্নয়ন চোখে পড়ে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। এবছরেই ঢাকা সিলেট মহা সড়ক চার লাইন করার কাজ শুরু হবে।  তিনি রোববার দুপুরে নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদ সংস্কার কাজের উদ্বোধন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও গজনাইপুর ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুর রহমান মুকুলের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন নবীগঞ্জ-বাহুবল আসনের সংসদ সদস্য  এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু, নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী, নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাজিনা সারোয়ার, নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব সাইফুল জাহান চৌধুরী, নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল বাতেন খান, হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের ৬নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত সদস্য এডভোকেট, সুলতান মাহমুদ প্রমুখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নবীগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র এটিএম সালাম, গজনাইপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান শাওনেয়াজ, দৈনিক হবিগঞ্জ সময় পত্রিকার নিবার্হী সম্পাদক মুরাদ আহমদ, গোপলার বাজার ফাঁড়ীর ইনচার্জ মোহাম্মদ আলী আশরাফ, উপজেলা আওয়ামী লীগ ত্রাণ ও সমাজ বিষয়ক সম্পাদক সাবের আহমেদ চৌধুরী, গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য, সংরক্ষিত সদস্যসহ অত্র ইউনিয়নের বিশিষ্ট মুরুব্বী,আওয়ামী যুবলীগ,ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সংগঠনে নেতা কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

নবীগঞ্জে উন্নয়ন মেলা উদ্বোধন

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে তিন দিন ব্যাপি উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন করা হয়েছে। গত সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বরে এই মেলার উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাজিনা সারোয়ারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন সংসদ সদস্য এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন নবীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জিতেন্দ্র দেব নাথ, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমদ মিলু, কৃষি কর্মকর্তা দুলাল উদ্দিন, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম, শিক্ষা অফিসার সাদেক হোসেন, নবীগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি এম এ আহমদ আজাদ প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে অতিথিবৃন্দ মেলার ৪২টি স্টল ঘুরে দেখেন।

ষড়যন্ত্র কখনো মহৎ কাজকে আটকে রাখতে পারে না: এমপি কেয়া চৌধুরী

রাকিল হোসেন নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা: হবিগঞ্জ-সিলেট সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশে উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত আছে। দেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। কোন ষড়যন্ত্র কখনোও মহৎ কাজকে   আটকে রাখতে পারে না। তিনি গতকাল শনিবার সকাল ১০টায় নবীগঞ্জে প্রতিবন্ধীদের বিনামূল্যে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অথিতির বক্তৃতায় উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়াধীন জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন এর পরিচালনায় ও প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র হবিগঞ্জ শাখার আয়োজনে নবীগঞ্জ   উপজেলায় মোবাইল-থেরাপি ভ্যান সেবা কার্যক্রম প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের ভ্যানে তুলে বিনামূল্যে চিকিৎসা প্রদান করা হয়। এ সময়   চিকিৎসা নেওয়ার জন্য আশে-পাশের ইউনিয়ন থেকে শত শত মানুষ ভীড় করে। ফ্রি ক্যাম্পে প্রায় দুই শতাধিক মানুষের চিকিৎসা প্রদান করা হয়। পরে দেবপাড়া ইউনিয়নের যিটকা গ্রামে ও দেরাপাশা গ্রামে গিয়ে অসহায় লোকজনের মাঝে   শীতবস্ত্র বিতরণ করেন এমপি কেয়া চৌধুরী।
এসময়  অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জীতেন্দ্র কুমার নাথ, দেবপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান, মাসুম আহমেদ   জাবেদ, উপজেলা সমাজ অফিসার মোঃ আব্দুর নূর, দেবপাড়া ইউপি’র চেয়ারম্যান মাসুম আহমেদ জাবেদ, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আহমেদ কাজল, আওয়ামী লীগ নেতা তেরা মিয়া, লোকমান খান, শ্রমিক নেতা দুলু মিয়া প্রমুখ। এসময় বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন।

৫ জানুয়ারিতে নবীগঞ্জ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কর্মসূচী

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা: নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ ওসহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে গণতন্ত্রের বিজয় দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে নবীগঞ্জ দউপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল এর সভাপতিত্বে এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী। একে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা মোজাহিদ আহমেদ, ইমদাদুল হক চৌধুরী, এডভোকেট গতি গৌবিন্দ্র দাশ, কাজী ওবায়দুল কাদের হেলাল, মোস্তাক আহমেদ মিলু, শাহ রিজভী আহমেদ খালেদ, নির্মলেন্দু দাশ রানা, দীপ্তেন্দু দাশ গুপ্ত বিধু, গোলাম হোসেন, আব্দুল মালিক, মুজিবুররহমান, এটিএম সালাম, ফরহাদ আহমদ, শৈলেন্দ্র চন্দ্র দাশ, আব্দুল হাকিম, বিধান ধর, মুহিবুর রহমান চৌধুরী, আব্দুল কাদির, হারুন মিয়া, কামাল হাসানচৌধুরী, সুজাত চৌধুরী, গৌতম দাশ, আব্দুলাহ মিয়া, আমিনুর রহমাননোমান, মুক্তার আলী তালুকদার, রাকিল হোসেন, শেখ তারা মিয়া, ইমান আলী, আব্দুর নুর, সন্তোষ দাশ, উৎপল চৌধুরী পান্না, মুহিবুর রহমান, হেলাল আহমদ, ময়না মিয়া, আব্দাল মিয়া, ইজাজ মিয়া, উমেদ আলী, অনুপ দাশ, বীরেশ দাশ, কৃষকলীগ নেতা শেখ শাহানুর আলম ছানু, বিকাশ রায়, মহাদেব রায়, শ্রমিকলীগ নেতা আব্দাল করিম, দিলশাদ মিয়া, সুফায়েল আহমদ, জুয়েল আহমদ, হাফিজুর রহমান, মনর মিয়া, তালেব মিয়া, আজিজুল ইসলাম, শেখর দেব, মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী দিলারা হোসেন, শেখ ছৈফা রহমান কাকলী, নাজনিন চৌধুরী, নীলুফা ইসলাম, ফুলন সুত্রধর, ফুর্শিদা ইয়াসমীন, যুবলীগ নেতা ফজল আহমেদ চৌধুরী, হাবিবুর রহমান হাবিব, সুমন আহমেদ, পিকলু চৌধুরী, রেজাউল করিম, আব্দুস ছালাম, রিপন কর, দুলাল দাশ, সাগর রায় রুবেল, অপু আচার্য্য, বদরুজ্জামান স্বাধীন, হাফিজ খান, জামাল মিয়া, সবুজ মিয়া, ডালিম আহমদ, আবুল আজাদ শাহজাহান ইলাকা, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ইকবাল আহমেদ বেলাল, উজ্জল সরদার, অনন্ত দাশ, আলমগীর চৌধুরী, আল আমীন খান,হাবিব রহমান, সালমান আহমেদ, লিটন আহমেদ, খালেদ মোশারফ, আল আমীন, হাফিজ মিয়া, আব্দুস ছুবান, মানিক দাশ, পারভেজ রাজ, মিলন চৌধুরী, নিপন চৌধুরী, ছাত্রলীগ নেতা আবু ছালেহ জীবন, সাইদুর রহমান, মোনায়েম আহমদ, আলী হোসেন দেলোয়ার, রায়হান মিয়া, মাহবুবুর রহমান রাজু, শিপন আহমদ,মুছা আহমদ, শাওন আহমদ, সোহাগ আহমদ, সাগর খান, সাজু, মিজান, আজগর, মাসুম আহমদ, শিপু রহমান, পিয়াশ আহমেদ, দবীর ইসলাম, সাইদুরর হমান, বিপ্রেস দাশ প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী বলেছেন, এদেশের গণতন্ত্রকে ধ্বংস করার জন্য বিএনপি জামায়াত জোট ঐক্যবদ্ধ হয়ে জ্বালাও পুড়াও শুরু করেছিল, তারা পেট্রলদিয়ে মানুষ হত্যা করে উল্লাস প্রকাশ করেছে। আর এদেশের মানুষ ভোটের মাধ্যমে
বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় এনে গণতন্ত্রকে রক্ষা করেছে। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে দেশের উন্নয়নের পাশাপাশি সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে সফলতা অর্জন করেছে। আজ দেশ উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে এবং দেশের মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে।

সাংবাদিক তাপস দাশ পুরকায়স্থের বাড়িতে হামলাকারীদের আটকের দাবি

লন্ডন : প্রবীণ সাংবাদিক দৈনিক উত্তরপূর্ব পত্রিকার বার্তা সম্পাদক ও গোবিন্দগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের গভর্ণিংবডির সভাপতি তাপস দাশ পুরকায়স্থের বাড়িতে হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন লন্ডনে বসবাসরত সাংবাদিক রাজনীতিবিদ, মানবাধিকার কর্মি ও সর্বস্থরের প্রবাসী।
সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে প্রবাসী নেতৃবৃন্দ বলেন, সাংবাদিকতায় বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখার কারনে একটি মহল ইর্ষান্বিত হয়ে গত ২জানুয়ারি মঙ্গলবার গভীর রাতে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার দিঘলী গ্রামে দুবৃত্তরা প্রবীণ এই সাংবাদিককে হত্যার উদ্দেশ্যে তাঁর বাড়িতে হামলা করে। বাড়ির লোকজন ও আশপাশের প্রতিবেশীদের প্রতিরোধের মুখে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। বিবৃতিতে বলা হয়, একটি গোষ্ঠি দেশের বিভিন্ন স্থানে ক্রমাগত ভাবে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে নিশ্চিহ্ন করতে একের পর এক হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় সাংবাদিক তাপস দাশ পুরকায়স্থকে হত্যার উদ্দেশ্যে গভীর রাতে তার বাড়িতে এই হামলা চালানো হয়। এই হামলার পর থেকে তাপস দাস পুরকায়স্থ ও তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন। বিবৃতিতে সঠিক তদন্তের মাদ্যমে হামলার কারণ ও হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন যুক্তরাজ্য বাসদের আব্বা য়ক গয়াছুর রহমান গয়াছ, যুক্তরাজ্য ওয়ার্কার্স পার্টির আহ্বায়ক প্রবীণ সাংবাদিক ইসহাক কাজল, সাংবাদিক গবেষক মতিয়ার চৌধুরী, সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মি আনসার আহমেদ উল্লাহ, সাংবাদিক সৈয়দ আনাছ পাশা, যুক্তরাজ্য ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটর পক্ষে জামাল আহমদ খান, স্মৃতি আজাদ, রুবি হক, বিশ্ব বাংলা নিউজ টুয়েন্টিফোর ডট কমের সম্পাদক, শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল, সংবাদ২৪ ডটকম’র সম্পাদক মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া, সাবেক ছাত্র নেতা দেলোয়ার হোসাইন দিপু, যুক্তরাজ্য গণজাগরণ মঞ্চের পক্ষে অজয়ন্তা দেব রায়, কামরুল হাসান তুষার, ক্যাম্পেইন ফর রিলিজিয়াস মাইনরিটিস ইন ইউকের পক্ষ থেকে পুষ্পিতা গুপ্তা, অজিত দাস, মানবাধিকার কর্মি সুজিত সেন, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের সাবেক ডেপুটি মেয়র সহিদ আলী, যুক্তরাজ্য জাসদের জুনেদুর রহমান প্রমুখ।

Scroll To Top

Design & Developed BY www.helalhostbd.net