শিরোনাম

কমিউনিটি

জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় আসলে দেশে প্রাদেশিক সরকার ব্যবস্থা চালু করবে লন্ডনে সম্বর্ধনা সভায় বক্তারা

লন্ডনঃ জাতীয় পার্টির প্রধান লক্ষ্য প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরনের মাধ্যমে সর্বস্থরের মানুষের সার্বিক উন্নয়ন সাধন করা। আমলাতন্ত্রের থাবা থেকে প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরনের মাধ্যমে সর্বস্থরে জনপ্রতিনিধিদের প্রতিনিধিত্ব প্রতিষ্টা করা। যুক্তরাজ্য জাতীয়পার্টি আয়োজিত সম্বর্ধনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। বক্তারা বলেন নতুন বাংলাদেশ গড়ার কারিগর সফল রাষ্ট্রপতি হোসেন মুহাম্মদ এরশাদের নেতৃত্বে দেশে উন্নয়নের জোয়ার সৃষ্টি হয়। দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের লক্ষ্যে জাতীয় পার্টি দেশে উপজেলা পদ্ধতি প্রবর্তন করে। প্রাদেশিক সরকার পদ্ধতি গঠন করার লক্ষ্য নিয়ে পল্লীবন্ধু হোসেন মুহম্মদ এরশাদ কাজ করছেন। জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় আসলে দেশে প্রাদেশিক সরকার ব্যবস্থা চালু করবে। যুক্তরাজ্য জাতীয় পার্টির আহবায়ক কাউন্সিলার শামসুল ইসলাম সেলিম ব্রিটিশ বাংলাদেশ ক্যাটারারর্স এসোসিয়েশনের (বিবিসিএ‘র) প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় তাঁর সম্মানে ইউকে জাতীয় পার্টি এক সম্বর্ধনা সভার আয়োজন করে। গেল ১১ ফেব্রুয়ারী বিকেলে ইষ্টলন্ডনের ব্লুমুন মিডিয়া সেন্টারে ইউকে জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এডভোকেট এবাদ হোসেনের সভাপতিত্বে এবং ইউকে জাতীয় পার্টির সদস্য সচীব সাহেদ আহমদের সঞ্চালনায় সম্বর্ধনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পর্টির ইউরোপীয়ান কোঅর্ডিনেটর মুহম্মদ মুজিবুর রহমান, বিশেষ অতিথি হিসেব উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পর্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সিলেট জেলা জাতীয় পর্টির জয়েন্ট কনভেনার মুহম্মদ সাইফ উদ্দিন খালেদ। সম্বর্ধনার সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওত করেন হাজী শামসুল হক। অতিথিদের ফুল দিয়ে বরন করেন মজির উদ্দিন,জবরুল ইসলাম লনি, তানভির হোসের ও সাইফ রহমান। সম্বর্ধনার জবাবে কাউন্সিলার শামসুল ইসলাম সেলিম চলার পথে সকলের দোয়া ও সার্বিক সহযোগীতা কামনা করেন। সম্বর্ধনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ইউকে জাপার যুগ্ম আহবায়ক নাসির উদ্দিন হেলাল, যুক্তরাজ্য জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহবায়ক মুহম্মদ আব্দুল হাই, মাসুক আহমদ যুগ্মসদস্য সচীব ইউকে জাতীয় পার্টি, সিরাজ উদ্দিন খান সাবেক সভাপতি লুটন জাতীয় পার্টি, সায়েফ রহমান যুগ্মসদস্য সচীব,কামাল আহমদ চৌধুরী সেক্রেটারী লুটন জাতীয় পার্টি, জবরুল ইসলাম লনি, সৈয়দ জহুরুল হক, ফয়েজুল ইসলাম প্রমুখ।

বার্মিংহাম লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সের কার্যকরী কমিটির পুনর্গঠন প্রিন্সিপাল মাওলানা এম এ কাদির আল হাসান চেয়ারম্যান মোঃ মিসবাউর রহমান সেক্রেটারি আমিরুল ইসলাম জামাল ট্রেজারার

মোঃ হুসাম উদ্দিন আল হুমায়দী: যুক্তরাজ্যে অন্যতম বৃহৎ প্রতিষ্ঠান লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সের উদ্যোগে গত ৫ ফেব্রুয়ারি সোমবার দুপুরে ‘দি ব্রিটিশ মুসলিম স্কুল হলে কমপ্লেক্সের কমিটি পুনর্গঠনের লক্ষে পেট্টন মেম্বারদের নিয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন কমপ্লেক্সের কমিটির চেয়ারম্যান প্রিন্সিপাল মাওলানা এম এ কাদির আল হাসান এবং সঞ্চালনা করেন কমপ্লেক্সের সেক্রেটারি মিসবাহুর রহমান।
উক্ত সভায় উপস্থিত ছিলেন লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সের অন্যতম ট্রাস্টি যুক্তরাজ্যের বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব আলহাজ নাছির IMG_6819আহমদ, অন্যতম ফাউন্ডার মেম্বার আলহাজ আবুল হোসাইন (সাত্তার মিয়া), ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ কাজী আঙ্গুর মিয়া, হাজী কামারুল হাসান চুনু, আলহাজ গয়াস মিয়া, মাওলানা রফিIMG_6820ক আহমদ, মোঃ খুরশিদ উল হক, আব্দুল ইকবাল, মোঃ আব্দুল হাই, মোঃ মন্তাজ আলী, মোহাম্মদ শাহজাহান, মোঃ এমদাদ হোসাইন, মাস্টার মোঃ আব্দুল মুহিত, মোঃ আমিরুল ইসলাম জামাল, ফিরুজ খান, মাওলানা বদরুল হক খান, হাজী হাসন আলী হেলাল, মোঃ সাইফুল ইসলাম, মাওলানা নুরুল আমিন, মাওলানা মোঃ হুIMG_6821সাম উদ্দিন আল হুমায়দী, মোঃ রায়হান আহমদ চৌধুরী, মাওলানা গুলজার আহমদ, মাওলানা মোঃ আব্দুল মুনিম, মাওলানা মাহবুব কামাল, মোঃ আতাউর রহামন, মোঃ আকিকুর রহমান, হাজী ফারুক মিয়া, হাজী তেরা মিয়া, সুফী ইদরিছ আলী, হাফিজ আলী হোসেন বাবুল, মাওলানা এহসানুল হক, হাফিজ মাসুম আহমদ, হাজী আবুল কাশেম, কারী মাহফুজুল হাসান খান ও হাফিজ রুমেল আহমদ।
সভায় বিগত বছরের রিপোর্ট পেশ করা হয় এবং তা প্রশংসিত ও সর্বসম্মত ভাবে গৃহীত হয়। সভায় উপস্থিত সদস্যবৃন্দের মতামতের ভিত্তিতে নি¤œলিখিত কমিটি গঠণ করা হয়।
চেয়ারম্যান প্রিন্সিপাল মাওলানা এম এ কাদির আল হাসান, ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ কাজী আঙ্গুর মিয়া, আলহাজ মাহবুবুর রহমান চৌধুরী রুহেল ও মাওলানা রফিক আহমদ। সেক্রেটারি মোঃ মিসবাউর রহমান, এসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি মোঃ খুরশিদ উল হক ও মোঃ আব্দুল হাই, ট্রেজারার মোঃ আমিরুল ইসলাম জামাল, এসিস্ট্যান্ট ট্রেজারার মাওলানা গুলজার আহমদ, প্রেস এন্ড পাবলিসিটি সেক্রেটারি মাওলানা মোঃ হুসাম উদ্দিন আল হুমায়দী, মেম্বারশীপ সেক্রেটারি মাওলানা মোঃ আব্দুল মুনিম, জয়েন্ট মেম্বারশীপ সেক্রেটারি মোঃ সাহাব উদ্দিন, অরগেনাইজিং সেক্রেটারি হাসন আলী হেলাল, জয়েন্ট অরগেনাইজিং সেক্রেটারি মোঃ সাইফুল আলম, এক্সিকিউটিভ মেম্বার এমদাদ হোসাইন, মোহাম্মদ শাহজাহান, হাফিজ আলী হোসেন বাবুল, হাজী ফারুক মিয়া, হাজী আবুল কাশেম, মাওলানা বদরুল হক খান, হাজী আজির উদ্দিন, রায়হান আহমদ চৌধুরী, আব্দুল ইকবাল, হাজী আবুল হোসাইন (সাত্তার মিয়া) ও হাজী মন্তাজ আলী।
পরিশেষে বিশেষ মুনাজাতে বিশ্বমুসলিমের শান্তি, সৌহার্দ্য ও উন্নতির জন্য দোয়া করা হয়।

বিবিসিএ‘র নতুন নেতৃত্ব প্রেসিডেন্ট শামসুল ইসলাম সেলিম- সেক্রেটারী জেনারেল সেলিম চৌধুরী -ট্রেজারার তফজ্জুল মিয়া

লন্ডনঃ গতকাল ২৮ জানুয়ারী রোববার ইষ্টলন্ডনের ইমপ্রেশন ইভেন্ট ভ্যানুতে বার্ষিক কনফারেন্সের (এজিএম) মাধ্যমে বৃটেনে বাঙ্গালীদের বৃহত্তম সংগঠন ব্রিটিশ বাংলাদেশ ক্যাটারারর্স এসোসিয়েশন বিবিসিএ‘র ২০১৮-২০২০ সালের পূর্ণাঙ্গ কমিটির নাম ঘোষনা করা হয়। অধ্যাপক শাহগীর বখত ফারুকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের নির্বাচন কমিশন আনুষ্ঠানিক ভাবে নতুন কমিটির নাম ঘোষনা করেন। বৃটেনে বাঙ্গালীর ঐতিহ্যের স্মারক বিবিসিএ‘র নবনির্বাচিত কর্মকর্তারা হলেন রয়েল বারা অব উইন্ডসর কাউন্সিলের প্রথম এবং একমাত্র বাঙ্গালী কাউন্সিলার শামসুল ইসলাম সেলিম, সেক্রেটারী জেনারেল সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা ও হ্যারো কাউন্সিলের সাবেক কাউন্সিলার সেলিম চৌধুরী, চীপ ট্রেজারার তরুন ক্যাটারারর্স নেতা মিঃ তফজ্জুল মিয়া, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বনামখ্যাত ব্যাবসায়ী মোঃ আব্দুল কদ্দুস, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মিঃ আসিফ ঈকবাল, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট সমাজসেবী তারাউল ইসলাম, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মিঃ আনোয়ার আলী, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মানবাধিকার নেতা মোঃ সহিদুর রহমান, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট উইল্টশায়ার কাউন্টি কাউন্সিলের প্রথম এবং একমাত্র বাঙ্গালী কাউন্সিলার আতিকুল হক, ভাইস প্রেসিডেন্ট মুহিবুল হক চৌধুরী, ভাইস প্রেসিডেন্ট মোঃ রুহুল হোসেন, ভাইস প্রেসিডেন্ট সৈয়দ ফখরুল আলম পাভেল, জয়েন্ট সেক্রেটারী মিঃ এনামুল করীম খান সেলিম, জয়েন্ট সেক্রেটারী মিঃ মোঃ কদরুল ইসলাম, জয়েন্ট ট্রেজারার মোঃ ফজর আলী, অর্গেনাইজিং সেক্রেটারী রিয়াজ আলী, জয়েন্ট অর্গেনাইজিং সেক্রেটারী মিঃ রাশিদ আহমদ, মেম্বারশীপ সেক্রেটারী মিঃ মতিন মিয়া, প্রেস এন্ড পাবলিকেশন সেক্রেটারী মিঃ আতাউর রহমান, পাবলিক রিলেশন সেক্রেটারী মিঃ এনামুল হক কিরন, সোসিয়্যাল এন্ড ক্যালচারাল সেক্রেটারী মিঃ মস্তাকিন মিয়া, ন্যাশনাল এক্সিকিউটিভ কমিটির সদস্যরা হলেন সংগঠনের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট মোঃ ইয়াফর আলী, প্রবীণ ক্যাটারারর্স নেতা মিঃ আতিকুর রহমান খান, মিঃ এখলাছুর রহমান আলী, বিদায়ী কমিটির সেক্রেটারী শাহানুর খান, নূরুল হক নূর আলী, সংগঠনের ফাউন্ডার সদস্য কমিউনিটি নেতা জাহাঙ্গির খান, মিঃ আব্দুল হাই, মিঃ আব্দুল মোমাইন, মিঃ কামাল মিয়া, মিঃ মিরন মিয়া, মিঃ জামাল মিয়া, সাবেক চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট ক্যাটারারর্স নেতা মনজুল আলী আফজল, মিঃ মোনিম, মিঃ কামাল জাহাঙ্গির মিয়া ও বিদায়ী কমিটির ট্রেজারার এলাইছ মিয়া মতিন। এখানে উল্লেখ্য যে গেল ২৮ডিসেম্বর ২০১৭ বিবিসিএ‘র ২০১৮-২০২০ সালের নির্বাহী কমিটি গঠনের লক্ষ্যে আয়োজন করা হয় নমিনেশন দাখিলের এবং নির্বাচনের দিন ঠিক করা হয় ২৮ জানুয়ারী ২০১৮।1213
নির্ধারিত তারিখে একটি মাত্র প্যানেল মনোনয়ন জমা দেয়। বিদায়ী কমিটির প্রেসিডেন্ট ইয়াফর আলীর সভাপতিত্বে ও বিদায়ী সেক্রেটারী শাহানুর খানের পরিচালায় বক্তব্য রাখেন প্রধান নির্বাচন কমিশান অধ্যাপক শাহগীর বখত ফারুক, নির্বাচন কমিশনার ব্যারিস্টার নজির আহমদ, নির্বাচন কমিশনার একাউনটেন্ট শাহাব উদ্দিন, নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট কাউন্সিলার শামসুল ইসলাম সেলিম, নবনির্বাচিত সেক্রেটারী জেনালের সাবেক কাউন্সিলার সেলিম চৌধুরী, নবনির্বাচিত চীফ ট্রেজারারর মোঃ তফজ্জুল মিয়া, কামাল জাহাঙ্গির মিয়া প্রমুখ। প্রধান নির্বাচন কমিশনার অধ্যাপক শাহগীর বখত ফারুক বলেন প্রতিদ্বন্দি কোন প্যানেল না থাকায় যারা মনোনয়ন দাখিল করেছেন তারাই বিজয়ী, যেহেতু আজ ২৮ জানুয়ারী ২০১৮ নির্বাচনের তারিখ নির্ধারিত ছিল সুতরাং নির্ধারিত তারিখেই একমাত্র প্যানেল হিসেবে শামসুল ইসলাম সেলিম ও সেলিম চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন প্যানেলকে বিনাপ্রতিদ্বন্দিতায় আনুষ্টানিক ভাবে বিজয়ী ঘোষনা করা হলো।7
বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ইয়াফর আলী ও বিদায়ী সেক্রটারী শাহানুর খান নতুন কমিটিকে সব ধরনের সহযোগীতার আশ্বাস প্রদান করে বলেন আমারা শুরু করেছিলাম এগিয়ে নেবার দায়িত্ব নতুন কমিটির। নির্বাচন কমিশনার অধ্যাপক শাহগীর বখত ফারুক আরো বলেন শামসুল ইসলাম সেলিম এবং সেলিম চৌধুরী বৃটেনের বাঙ্গালী কমিউনিটিতে সুপরিচিত, রয়েছে তাদের অভিজ্ঞতা আমার বিশ্বাস তারা সংগঠনিটিকে কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবেন।

মোঃ আব্দুল গফুর আর নেই।। বিভিন্ন মহলের শোক

মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া, লন্ডন: হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নের বানিউন গ্রামের মোঃ আব্দুল গফুর গত ২৫ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক ৮টার সময় পূর্ব লন্ডনের ক্যাসন স্ট্রিটস্থ নিজ বাসগৃহে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। মৃত্যু কালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৭০ বছর।

২৭ জানুয়ারি রোজ শনিবার বাদ জোহর ব্রিকলেন জামে মসজিদে মরহুমের জানাজার নামাজ শেষে তাঁর মৃতদেহ গার্ডেন অব পিস-এ সমাহিত করা হয়। মৃত্যু কালে তিনি স্ত্রী, ২ পুত্র, ৩ কন্যা, ভাইবোন, আত্মীয়-স্বজন ও অসংখ্য গুনগ্রাহি রেখে গেছেন।

মরহুমের মৃত্যুতে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও ব্যক্তিগণ শোক প্রকাশ করে বিবৃতি প্রেরণ করেছেন। বিবৃতিতে তাঁরা জানান, মরহুম মোঃ আব্দুল গফুর একজন সজ্জন, বন্ধুবৎসল, নির্বিরোধী ও সামাজিক ব্যক্তিত্বসম্পন্ন মানুষ ছিলেন। দীর্ঘদিন যাবৎ পূর্ব লন্ডনে বসবাস করার কারণে বাঙালি কমিউনিটির কাছে তিনি একজন সুপরিচিত ব্যক্তিত্ব ছিলেন। বাংলাদেশের যে কোনো প্রয়োজনে যুক্তরাজ্যে বসবাসকারী বাঙালি কমিউনিটির সাথে সম্পৃক্ত থেকে তিনি বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের অংশীদার হয়েছেন। বিবৃতিতে তাঁরা মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি ও মাগফেরাত কামনা করে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দাতাগণ হলেন, যুক্তরাজ্য হবিগঞ্জ এসাসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ এ রউফ, সহ-সভাপতি সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরীসহ ফিরুজ উদ্দিন, আবু ইউসুফ চৌধুরী, হিফজুর রহমান চৌধুরী, এহিয়া চৌধুরী, নাজমুল ইসলাম; যুক্তরাজ্যে বসবাসরত ইনাতগগঞ্জ বাসীর পক্ষে মোঃ নজরুল ইসলাম, সৈয়দ ইকবাল আহমদ, তাহের আহমদ, নাসির আহমদ শ্যামল, সিরাজ উদ্দিন, হেলাল আহমদ; ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল বাতেন, বাংলাদেশ ক্যাটরার্স এসোসিয়েশনের সাবেক মেম্বারশিপ সেক্রেটারি সাইফুল আলম, ইনাতগঞ্জ দীঘলবাক গণদাবি বাস্তবায়ন পরিষদের আহ্বায়ক মোঃ দেলোয়ার হোসাইন দীপু, যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া, মোঃ আতিকুর রহমান লিটন ও আছাবুর রহমান জীবনসহ মোঃ সালাতুল ইসলাম, জাকারিযা হোসাইন, তারেক আহমদ, মোঃ কামরুল হাসান, সালাম উদ্দিন উজ্জল, রিপন আহমদ, মোঃ আব্দুল মোতাহিদ, শাহাজাহান আলী, মোঃ আকিকুর রহমান, জিল্লুর রহমান, রোকন উদ্দিন, মামুন আহমদ, দোলন আহমদ, মুহিত উদ্দিন, দুলেনুর রহমান, কামাল আহমদ, শাহীনুর রহমান, আক্তার হোসাইন আলী, সোহেল আহমদ, সাইফুল আলম শিপু প্রমুখ।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের দুর্গম পথ এবং ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের তাৎপর্য

লন্ডনঃ যুক্তরাজ্য ভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্টান দি সেভেন মার্চ ফাউন্ডেশন এবং সোয়াস সাউথ এশিয়া ইন্সটিটিউট ইউনিভারসিটি অব লন্ডন যৌথভাবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বর্ণাট্য রাজনৈতিক জীবন, দর্শন, চিন্তা-চেতনা এবং ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষনকে নজপ্রজন্ম সহ বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন ভাষাভাষী মানুষের কাছে তুলে ধরতে এক মহতী উদ্যোগ নিয়েছে, এরই অশং হিসেবে আগামী ৭ই মার্চ ২০১৮ সোয়াস ইউনিভারসিটির ব্রনি গ্যালারী ল্যাকচার থিয়েটার হলে শেখ মুজিবুর রহমান ল্যাকচার ২০১৮, আন্ডার স্টেন্ডিং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান- দি হার্ড রোড টু বাংলাদেশ ইন্ডিপেন্ডডেন্স এ্যান্ড দি মিনিং অব সেভেন মার্চ শীর্ষক একক ল্যাকচারের আয়োজন করেছে ( বালাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের দুর্গম পথ এবং ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের তাৎপর্য ) ।
এতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণের বিভিন্ন দিক নিয়ে গবেষনা মূলক ল্যাকচার রাখবেন প্রফেসর জেমস ম্যানর ইন্সটিটিউট অব কমনওয়েলথ ষ্টাডিজ। ভাষণের উপর গবেষণা মূলক ল্যাকচার শুনতে সোয়াস বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে গবেষক সাংবাদিক সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ নেবেন।
IMG_2810 (1)
গতকাল ২৪ জানুয়ারী বুধবার দুপুরে ইষ্ট লন্ডনের বাংলাটাউনের কাফেগ্রীল রেষ্টুরেন্টে এক সংবাদ সম্মেলনে আয়োজকরা একথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় জাতির জনকের এই ভাষণের বিভিন্ন দিক গুলো বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরতেই এই উদ্যোগ, যদিও ঐতিহাসিক ভাষণ সম্পর্কে পশ্চিমা বিশ্বের মানুষ সামান্যতম ধারনা রাখলেও অনেকেই এর বিষয় বস্তু সম্পর্কে জানেনা। বিভিন্ন দেশের গবেষক সহ অনেকই এর অদ্যান্ত জানতে আগ্রহী। তাই সোয়াস এবং সেভেন মার্চ ফাউন্ডেশন এই উদ্যোগ নিয়েছে।
2
গেল কয়েক বছর যাবত দি সেভেন মার্চ ফাউন্ডেশন ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষন নিয়ে গবেষনার পাশাপাশি ও বৃটেন এবং বাংলাদেশে নিয়মিত সেমিনার করে আসছে। আয়োজকদের মধ্যে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সোয়াস বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক প্রফেসর এডওয়ার্ড সিমসন, গবেষক ও সাবেক কাউন্সিলার নূরুদ্দিন আহমদ, গবেষক ও সাংবাদিক আনসার আহমেদ উল্লাহ, জামাল খান, শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় প্রফেসর জেমস ম্যানর তার ল্যাকচারে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষনের বিভিন্ন দিক এবং জাতির জনকের বর্ণাট্য জীবনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরবেন ।
সংবাদ সম্মেলনে প্রফেসর এডওয়ার্ড সিমসন বলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে বিশেষ করে বাংলাদেশের বাইরে অনেকেই তার ব্যক্তিত্ব এবং চিন্তা চেতনা সম্পর্কে তেমন কিছু জানেনা, বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলার মানুষকে পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্তই করেননি তার চিন্তা চেনতা নিয়ে আরো গবেষার প্রয়োজন রয়েছে, তাঁকে স্বপরিবারে হত্যার পর বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে শুধু নেতিবাচক দিক গুলো প্রচার করা হয়েছে। ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণের বিভিন্ন দিক রয়েছে এই ভাষনের প্রতিটি শব্দই গবেষনার দাবী রাখে। তাই বিশ্বব্যাপী এই ভাষন নিয়ে আজ গবেষনা হচ্ছে, এই ভাষন বিশ্ববাসীর সম্পদ।
সেভেন মার্চ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান গবেষক নুরুদ্দিন আহমদ বলেন ইতিপূর্বে এজাতীয় উদ্যোগ আর কেউ গ্রহন করেনি, সেভেন মার্চ মার্চ ফাউন্ডেশন কয়েক বছর যাবত গবেষনার পাশাপাশি জাতির জনকের জীবনের বিভিন্ন দিক গুলো বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরতে কাজ করে যাচ্ছে, আমাদের বিশ্বাস এর মাধ্যমে অনেকেই বঙ্গবন্ধুর জীবনের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে ধারনা পাবেন উপকৃত হবে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম।

জামান-আতিক- জয়নালের নেতৃত্বে নিউ ওরিয়েন্টেল সপিং সেন্টারের নতুন পরিচালনা পর্ষদ

লন্ডনঃ সিলেট শহরের প্রাণকেন্দ্র বন্দরবাজারে প্রবাসীদের বিনিয়োগে প্রতিষ্ঠিত নিউ ওরিয়েন্টাল কোম্পেনীর নতুন পরিচালনা পর্ষদ গঠন করা হয়েছে। গত ২৩ জানুয়ারী মঙ্গলবার দুপুরে ইষ্ট লন্ডনের বাংলা টাউনের আমার গাঁও রেষ্টুরেন্টে পরিচালনা বোর্ডের বার্ষিক সাধারন সভায় সর্বসম্মতি ক্রমে নতুন কমিটির নাম ঘোষনা করা হয়। এসময় বিনিয়োগকারীরা ছাড়াও বৃটেনের বাংলাদেশী কমিউনিটির বিশিষ্ট জনেরা উপস্থিত ছিলেন। ডিরেক্টর নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও ডিরেক্টর কাউন্সিলার আতিকুল হকের সঞ্চালনায় অনুষ্টিত সভায় কোম্পেনীর নতুন পরিচালনা পর্ষদের নাম ঘোষনা করা হয়। এতে সর্বসম্মতি ক্রমে ডিরেক্টর জামান চৌধুরীকে চেয়ারম্যান, ডিরেক্টর কাউন্সিলার আতিকুল হককে ট্রেজারার ও ডিরেক্টর জয়নাল কোরেশীকে ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি) হিসেবে নাম প্রস্থাব করলে তা সর্বসম্মতি করে গৃহীত হয়। নতুন পরিচালনা কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন সাবেক এমপি শাহিনুর পাশা চৌধুরী, সৈয়দ রুহুল আমিন, মোঃ সোহেলুল হক, মোহাম্মদ মাহমুদুর রহমান, মোঃ ফয়সল আহমদ, সৈয়দ মোস্তফা মোমেন, জিয়াউর রহমান, সৈয়দ সুবের আহমদ, মোহাম্মদ ফটিক মিয়া, মঞ্জুরুল ইসলাম, রোশনারা বেগম, আব্দুল মতলিব চৌধুরী, রহমান চৌধুরী, আব্দুল কাইয়ুম, ও শানুর আলী। এখানে উল্লেখ্য যে ২০১৫ সালে উপরে উল্লেখিত ডিরেক্টরগণ এই কমপ্লেস্কটি ক্রয় করে নিউ ওরিয়েন্টাল সপিং স্টোর নামে যাত্রা শুরু করেন। দশতলা বিশিষ্ট এই ভবনে রয়েছে একটি বিলাস বহুল আবাসিক হোটেল, রেষ্টরেন্ট ও শতাধিক দোকান। বিনোয়োগকারীদের ১৫জনই বৃটেন প্রবাসী।

বার্মিংহামে অভিযাত্রিক পাঠক ফোরামের উদ্যোগে হাফিজ উসমান খান শামীমের পিতার মৃত্যুতে দোয়া মাহফিল

বার্মিংহাম ২৩ জানুয়ারি: বাংলা ইসলামিক তাহযীব তামাদ্দুন রক্ষার মুখপাত্র মাসিক অভিযাত্রিক পাঠক ফোরাম ইউকে বার্মিংহাম শাখার উদ্যোগে গত ২৩ জানুয়ারি মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শাখার সেক্রেটারি বার্মিংহাম আল ইসলাহ’র নির্বাহী সদস্য হাফিজ উসমান খান শামীমের পিতা মরহুম সাজিদ খানের মৃত্যুতে ইসালে সাওয়াব উপলক্ষে বার্মিংহাম শাহজালাল জামে মসজিদে এক দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত দোয়া মাফিলে উস্থিত ছিলেন বার্মিংহাম শাহজালাল জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা নুরুল আলম, অভিযাত্রিক পাঠক ফোরাম বার্মিংহাম শাখার চেয়ারম্যান ইউকে মিডল্যান্ডস আল ইসলাহ’র জয়েন্ট সেক্রেটারি মাওলানা মোঃ হুসাম উদ্দিন আল হুমায়দী, স্যান্ডওয়েল আল ইসলাহ’র সেক্রেটারি হাফিজ আলী হোসেন বাবুল, বার্মিংহাম আল ইসলাহ’র জয়েন্ট সেক্রেটারি মাওলানা মোঃ আব্দুল মুনিম, বার্মিংহাম আল ইসলাহ’র প্রেস এন্ড পাবলিকেশন সেক্রেটারি মাওলানা এহসানুল হক, মোঃ বিরাম আলী, কমিউনিটি নেতা আলহাজ সিরাজুল ইসলাম, হাফিজ আবুল কালাম, হাফিজ কবির আহমদ, ক্বারি সৈয়দ শহিদুর রহমান, মোঃ মশিউর রহমান এবং বার্মিংহাম অভিযাত্রিক পাঠক ফোরামের সেক্রেটারি হাফিজ উসমান খান শমীম। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি

বার্মিংহামে আল্লামা ফুলতলী (রঃ) এর ইছালে ছাওয়াব।।বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মসজিদ মাদরাসাসহ দ্বীনের খেদমতে অসংখ্য প্রতিষ্ঠান গড়েছেন তিনি

বার্মিংহাম ১২ জানুয়ারি: যুক্তরাজ্যের অন্যতম শহর বার্মিংহামের লজেলস উইলস্ট্রিট বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টার এন্ড জামে মসজিদে গত ১২ জানুয়ারি শুক্রবার শামসুল উলামা হযরত আল্লামা ফুলতলী ছাহেব ক্বিবলা (রঃ) এর ইছালে ছাওয়াব মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টারের চেয়ারম্যান বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব আলহাজ নাছিIsale Sawab 3র আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাহফিলে আলোচনা পেশ করেন বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টারের ইমাম ও খতিব মাওলানা হুসাম উদ্দিন আল হুমায়দী। এতে দোয়া পরিচালনা করেন সেন্টারের ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ মাওলানা আব্দুল হক নুমানী।
মাহফিলে বক্তারা বলেন, যামানার মুজাদ্দিদ, শামসুল উলামা হযরত আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলা (রঃ) এর পুরোটা জীবনই দ্বীন ইসলামের খেদমIsale Sawab 2তে ব্যয় করে গেছেন। তিনি সামাজিক, রাজনৈতিকসহ সকল ক্ষেত্রেই অবদান রেখে গেছেন। তাঁর অবদান অবিস্মরণীয়।  তিনি গ্রেট ব্রিটেন, আমেরিকাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মসজিদ, মাদরাসা, খানকাসহ দ্বীনের খেদমতে অসংখ্য প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন।
তাঁরা আরো বলেন, তিনি একজন শায়খুল হাদিস, রাইছুল কুররা, আশেকে রাসুল (সঃ) ও যামানার অন্যতম শ্রেষ্ঠ মুজাদ্দিদ ছিলেন।
মাহফিলে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সেন্টারের সেক্রেটারি হাজী আজির উদ্দিন আবদাল, জয়েন্ট সেক্রেটারি হাজী ফারুক মিয়া, ক্যাশিয়ার হাজী তারা মিয়া, জয়েন্ট ক্যাশিয়ার হাজী রজব আলী, অরগেনাইজিং সেক্রেটারি হাজী বসির মিয়া, মাওলানা বদরুল হক খান ও হাফিজ আবুল কালাম।
মাহফিল শেষে মিলাদ ও বিশেষ মুনাজাতের মাধ্যমে বিশ্বমুসলিমের শান্তি, উন্নতি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।

বার্মিংহাম আল ইসলাহ’র দ্বি-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত।। বিশ্বের সকল মুসলিম রাষ্ট্রপ্রধান এক হয়ে বায়তুল মুকাদ্দাস রক্ষা এখন সময়ের দাবি

বার্মিংহাম: আনজুমানে আল ইসলাহ ইউকে বার্মিংহাম শাখার উদ্যোগে গত ২ জানুয়ারি মঙ্গলবার দুপুরে বার্মিংহাম বাংলাদেশ মাল্টিপারপাস সেন্টারে শাখার দ্বি-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়।
শাখার ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট মাওলানা আতিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারি মাওলানা মোঃ হুসাম উদ্দিন আল হুমায়দীর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তাগণ বলেন, বায়তুল মুকাদ্দাস হচ্ছে মুসলমানদের প্রথম ক্বিবলা। এটি ইসলাম ও মুসলমানদের ঐতিহ্য। সেখানে অসংখ্য নবী-রসুলের আগমন ঘটেছে। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মাদ (সঃ) মি’রাজের সময় এ মসজিদ সফর করেছিলেন। এই মসজিদে তিনি সমগ্র নবী রসুলগণের ইমামতি করেছিলেন। আজ ইহুদীরা সেই ্ঐতিহ্য নষ্ট করতে যাচ্ছে। সম্প্রতি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অন্যায় ভাবে মুসলমানদের দেশ ফিলিস্তিনের রাজধানী জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী বলে ঘোষণা করেছেন। বক্তারা এর তীব্র নিন্দা জানিয়ে বিশ্বের সকল মুসলিম দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের এক হয়ে বায়তুল মুকাদ্দাসসহ ফিলিস্তিন রক্ষায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
শাখার জয়েন্ট সেক্রেটারি মাওলানা আব্দুল মুনিমের পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া সভায় বক্তব্য রাখেন শাখার ক্যাশিয়ার হাজী সাহাব উদ্দিন, প্রেস এন্ড পাবলিসিটি সেক্রেটারি মাওলানা এহসানুল হক, নির্বাহী সদস্য হাফিজ উসমান খান সামিম প্রমুখ।
পরিশেষে বিশেষ মুনাজাতের মাধ্যমে সভার সমাপ্তি হয়।

বাঙালি কমিউনিটির মুখ উজ্জ্বল করলেন তৃতীয় প্রজন্মের দুই ব্রিটিশ বাঙালি নারী

লন্ডনঃ নতুন বছরে ব্রিটেনে বাঙালি কমিউনিটির মুখ উজ্বল করলেন তৃতীয় প্রজন্মের দুই ব্রিটিশ বাঙালি নারী। দক্ষতার স্বীকৃতি স্বরূপ ব্রিটেনের রাণির কাছ থেকে সর্বোচ্চ রাজকীয় খেতাব এমবিই ও ওবিইতে ভূষিত হলেন তাঁরা । তৃতীয় প্রজন্মের কৃতি এই দুই বাঙালি উভয়েই পেশায় চিকিৎসক। তাঁরা হলেন ডাঃ আনোয়ারা আলী ও ডাঃ সুলতানা জামান পপি। ডাঃ আনোয়ারা আলীর জন্ম সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের সুনামপুর গ্রামে, পিতার নাম মরহুম জোবেদ আলী মাতার নাম ছলিমা খাতুন। dr anwara aliতিনি মাত্র দুইবছর বয়সে পরিবারের সাথে ব্রিটেনে আসেন। তাঁর বেড়ে উঠা ইস্ট লন্ডনে। তিনি ১৯৯৭ সালে সেন্ট বারর্থোমলুজ ও রয়েল লন্ডন মেডিকেল স্কুল থেকে এমবিবিএস পাশ করেন, তিনি ইস্ট লন্ডনের স্পিটালফিল্ড ও বাংলাটাউন এলাকার একটি সার্জারীতে জিপি সিহেবে কাজ করছেন। আনোয়ারা আলী চিকিৎসা পেশার পাশাপাশি ব্রিটেনের মূল ধারার রাজনীতির সাথেও জড়িত। তার অন্য পরিচয় তিনি চ্যানেল আই ইউরোপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর বিশিষ্ট কমউনিটি ব্যক্তিত্ব রেজা আহমদ ফয়সল চৌধুরী শোয়াইবের স্ত্রী।sultana popy
বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত সুলতানা পপি জামান অফিসার অব দ্য অর্ডার অব দ্য ব্রিটিশ অ্যাম্পায়ার (ওবিই) খেতাবপ্রাপ্ত হলেন ,পপি মেন্টাল হেলথ ফার্স্ট এইড ইংল্যান্ডের চিফ এক্সিকিউটিভ। লন্ডন ভিত্তিক এই প্রতিষ্ঠানটি দেশব্যাপী মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তুলতে বিভিন্ন ধরনের প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে থাকে এবং প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। গত আট বছর ধরে এ প্রতিষ্ঠানে রয়েছেন সুলতানা পপি জামান। ২০০৩-০৪ সাল পর্যন্ত পপি পোর্টসমাউথ প্রাইমারি কেয়ার ট্রাস্টে কর্মরত ছিলেন তিনি। ২০০৭ সালে তাকে ইংল্যান্ড জুড়ে মেন্টাল হেলথ ট্রেনিং উন্নয়নের জন্য দায়িত্ব দেয়া হয়। মেন্টাল হেলথ ফার্স্ট এইড ট্রেনিংয়ের জনপ্রিয়তার কারণে অলাভজনক এ প্রতিষ্ঠানটিকে সোশ্যাল এন্টারপ্রাইজ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেন পপি জামান।

বিগত বছর নিজ নিজ খাতে অবদানের জন্য নতুন বছরের প্রথম দিন এই পুরস্কার দেয়া হয়। মূলত নতুন বছর উদযাপনের অংশ হিসেবে কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর যোগ্য নাগরিকদের এই সম্মাননা দিয়ে থাকেন ব্রিটেনর রাণি। পপির পরিবার মৌলভীবাজার সদর উপজেলার আদি বাসিন্দা। তবে ৪১ বছর বয়সী পপির জন্ম ব্রিটেনের পোর্টসমাউথে।

Scroll To Top

Design & Developed BY www.helalhostbd.net