শিরোনাম

 খেলা

নবীগঞ্জে পুরুষোত্তমপুর প্রিমিয়ারলীগ (পিপিএল) টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট উদ্বোধন

উত্তম কুমার পাল হিমেল নবীগঞ্জ-থেকেঃ নবীগঞ্জ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের টুকের বাজার জামে মসজিদ সংলগ্ন মাঠে গতকাল শনিবার সকালে পুরুষোত্তমপুর প্রিমিয়ার লীগ (পিপিএল) টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট এর উদ্বোধন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ছাইম উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং আইনুল হক জুয়েলের পরিচালনায় অনুষ্টিত উদ্বোধনীয় অনুষ্টানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমা বেগম। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট কবি ও গীতিকার লন্ডন প্রবাসী জাহাঙ্গীর আলম রানা, নবীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও পৌর সভার কাউন্সিলর এটিএম সালাম, প্রাইমারী শিক্ষক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক রুবেল মিয়া, বৈলাকীপুর প্রাইমারী স্কুলের প্রধান শিক্ষক বিপুল দেব, প্রিমিয়ার লীগের উপদেষ্টা সদস্য মীর জাহান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুর রহমান সুনুক, সাহেব আলী। দুবাই প্রবাসী আবু সুফিয়ান ও নবীগঞ্জ শহরস্থ লিনা ভেরাইটিজ ষ্টোর’র সত্ত্বাধিকারী সুনুক মিয়ার পৃষ্ঠপোষকতায় অনুষ্টানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোঃ আইনুল হক, শিক্ষক আমিনুল ইসলাম স্বপন, মুহিত রঞ্জন ভট্রার্চায্য, ইছমত আহমেদ লিমন, মাহবুব, আফতাব উদ্দিন, রশিদুল ইসলাম, বদরুজ্জামান, আশিকুর রহমান আশিক, প্রমূখ। পরে অতিথিবৃন্দ মাঠে প্রবেশ করে টুর্নামেন্টে অংশ গ্রহনকারী খেলোয়াড়দের সাথে কুশল বিনিময় শেষে খেলার আনুষ্টানিক উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী খেলায় ফ্রেন্স ক্লাব বনাম পুরুষোত্তমপুর রাইজিং ষ্টার অংশ গ্রহন করে। এতে ৯ উইকেটে ফ্রেন্স ক্লাবকে হারিয়ে রাইজিং ষ্টার জয় লাভ করেছে।

আজ শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে টি-২০ সিরিজ

সংবাদ ডেক্স: খুলনার আবু নাসের স্টেডিয়ামে আজ শুরু হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ( চার ম্যাচ) টি-২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচ। ম্যাচটি শুরু হবে বিকাল ৩টায়। সরাসরি সম্প্রচার করবে গাজী টেলিভিশন। মার্চের শুরুতে ভারতে অনুষ্ঠিত হবে টি-২০ বিশ্বকাপ। তার আগে এই সিরিজটা দুই দলের জন্যেই নিজেদের প্রস্তুতি করে নেওয়ার। ২০ ওভার ফরমেটে বাংলাদেশ দলে ভালো কম্বিনেশন গড়ে ওঠেনি এখনও। যেটা গড়ে ওঠেছে ওয়ানডে ফরমেটে।টি-২০ র‌্যাঙ্কিংয়ে আফগানিস্তানেরও নিচে বাংলাদেশ।

টি-২০ বিশ্বকাপের আগে এই ফরমেটের দুর্বরতা কাটিয়ে উঠতে চায় বাংলাদেশ। তাই জিম্বাবুয়ে সিরিজ এক দিক দিয়ে বেশ গুরুত্বপূর্ণ টাইগারদের জন্য। আগের দিন কোচ চন্দ্রিকা হাথুরাসিংহে জানান, জিম্বাবুয়ে সিরিজে কম্বিনেশন গড়ে তোলার লক্ষ্য তার। সেই সঙ্গে কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষ করার কথাও বলেন তিনি। কী সেই পরীক্ষা নিরীক্ষা?

জানা গেছে, কালকের ম্যাচে অভিষেক হতে পারে উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহানের। সদ্য সমাপ্ত বিপিএলে উইকেটর পিছনের দায়িত্ব ঠিকঠাক সামলানোর পাশাপাশি ব্যাট হাতেও ভালো করেছেন। সোহান উইকেটের পিছনে থাকলে স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান হিসেবে একাদশে থাকবেন মুশফিকুর রহিম। তিনি ব্যাট করবেন ৪ নম্বরে। ওপেনিংয়ে যথারীতি তামিমের সঙ্গে সৌম্য সরকার। তিন  নম্বরে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। সাকিব আল হাসান ৫ নম্বরে। এরপর সাব্বির রহমান।

মাশরাফি ও মুস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে তৃতীয় পেসার হিসেবে আল আমিন না তরুণ আবু হায়দার রনি, সেটাই দেখার বিষয়। অন্যদিকে অলরাউন্ডার শুভাগত হোম এবং স্পিনার আরাফাত সানির মধ্যে কে একাদশে থাকেন সেটাও দেখার।

খুলনায় টস ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়াতে পারে। খুলনার উইকেট ঢাকার মতো নয়। পুরো ব্যাটিং সহায়ক। মাঠও তুলনামূলক ছোট। প্রথমে ব্যাট করে সহজেই ১৫০-১৬০ রান তোলা সম্ভব। তবে শিশির পড়া শুরু করলে পরে ব্যাট করা দল কিছুটা বিপদে পড়তে পারে। তাই টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিতে দেরি করবেন না কোন অধিনায়ক।

বাংলাদেশ ‘এ’ দলের বিজয়

জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল আর মাত্র ৬১ রান। কাল তৃতীয় দিন শেষে ১ উইকেটে ৪৩ রান করে ফেলা বাংলাদেশ ‘এ’ দলের সেই প্রয়োজনীয় রান তুলে নিতে কোনো সমস্যাই হয়নি। চতুর্থ দিন প্রথম সেশনেই সেই রান তুলে জিম্বাবুয়ে ‘এ’ দলকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ ‘এ’।

লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছতে সমস্যা হয়নি এটা বলাটা বোধহয় একটু বাড়াবাড়িই হয়ে গেল। ১ উইকেট ৪৩ রান নিয়ে চতুর্থ দিন শুরু করা বাংলাদেশ ‘এ’ দল লক্ষ্যপূরণের পথে হারিয়েছে আরও তিনটি উইকেট। লিটন দাস, মার্শাল আইয়ূব ও রকিবুল হাসান দ্রুত ফিরে গিয়ে যে শঙ্কার জন্ম দিয়েছিলেন, সেই শঙ্কাটাই দূর করেছেন নাঈম ইসলাম ও ফরহাদ হোসেন।

নাঈম ১৫ এবং ফরহাদ ১৬ রানে অপরাজিত থেকে বাংলাদেশ ‘এ’কে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন। এর আগে, লিটন ৪২, মার্শাল ১৩ ও রকিবুল ১০ রান করেন।

কক্সবাজারের শেখ কামাল স্টেডিয়ামের দুর্বোধ্য উইকেটে জিম্বাবুয়ে ‘এ’ দলের বিপক্ষে এই বেসরকারি টেস্ট ম্যাচটি শুরুর দিন থেকেই রঙ বদলেছে নানাভাবে। তবে এই ম্যাচে বল হাতে বাজিমাতটা ওই সাকলাইন সজীবেরই। প্রথম ইনিংসে ৯ আর দ্বিতীয় ইনিংসে ৬-মোট ১৫ উইকেট নিয়ে রেকর্ডই করে ফেলেছেন তিনি। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে ইনিংস ও ম্যাচে সেরা বোলিং পরিসংখ্যান এখন তাঁরই।

নবীগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ড কাপের ফাইনাল অনুষ্ঠিত

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি : নবীগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টের উপজেলা পর্যায়ের ফাইনাল খেলা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Nabigonj Sport-2

উপেজলা প্রশাসনের আয়োজনে ও প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সার্বিক সহযোগিতায় ২৪ আগস্ট সোমবার দুপুরে নবীগঞ্জ পৌর এলাকার গন্ধা মাঠে উক্ত খেলা অনুষ্ঠিত হয়। উপচে পড়া দর্শকের উপস্থিতিতে বঙ্গবন্ধু গ্রুপে ১২৫ নং রামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ট্রাইবেকারে ২-১ গোলে করিমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে পরাজিত করে উপজেলার চ্যাম্পিয়ান হওয়ার গৌরব অর্জন করে। অপর দিকে বঙ্গমাতা গ্র“পে ৮ নং রামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ২-০ গোলে মান্দারকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ান হওয়ার গৌরব অর্জন করে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ করেন। পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ আব্দুর রাজ্জাক। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব সাইফুল জাহান চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুস্তাক আহমেদ মিলু, প্রেসক্লাব সভাপতি এটিএম সালাম, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি দীপতেন্দু নারায়ন রায়, সাবেক সম্পাদক শামীম আহমেদ চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমেদ, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সরওয়ার শিকদার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এম এ আহমদ আজাদ।

উপজেলা শিক্ষক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক রুবেল মিয়ার পরিচালনায় এতে অন্যানন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা জমসেদুর রহমান, খোরশেদ আলম, আরিছ মিয়া, সায়মা সুলতানা, শিক্ষিকা শাহীনুর আক্তার পান্না, রাহেলা খানম, সাংবাদিক মতিউর রহমান, শিক্ষক সুবিনয় দাশ, সঞ্জয় দাশ, পিন্টু রায়, অশেষ দাশ, তোফাজ্জুল হক, আঃ মজিদ, পলাশ দাশ, লিটন দেবনাথ, মাহবুবুর রহমান, সজল দাশ, বিশ্ব জিৎ দেব, লোমেশ রঞ্জন দাশ, মিছবাহ বেগম, লিটন কান্তি দাশ মিঠু, লাভলী রায় প্রমুখ। উক্ত খেলায় রেফারি ছিলেন, কাউন্সিলর মিজানুর রহমান ও আব্দুল আলীম। খেলায় মোট ২৮টি টিম অংশ নেয় এর মধ্যে ১৪টিম (ছেলে) ও ১৪টিম (মেয়ে)।

ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচে কুমার সাঙ্গাকারা

একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কিংবা টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নিয়েছেন আগেই।

শ্রীলঙ্কার পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের অধিকারী ব্যাটসম্যান কুমার সাঙ্গাকারা এবার বিদায় জানাচ্ছেন টেস্ট ক্রিকেটকেও।

কলোম্বোতে সফরকারী ভারতের বিপক্ষে আজ থেকে শুরু হওয়া দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ খেলার মধ্য দিয়ে ইতি টানছেন ১৫ বছরের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ারের।

৩৭ বছর বয়সী লংকান এই ক্রিকেট তারকা সাঙ্গাকারা ক্যারিয়ারের ইতি টানার জন্য পি সারা ওভাল স্টেডিয়ামকেই বেছে নিয়েছেন।

শ্রীলংকার পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের কৃতিত্ব এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান সাঙ্গাকারার।২০০০ সালে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। টেস্টে সংগ্রহ ১২ হাজার ৩৫০ রান, যার গড় দাঁড়ায় ৫৭.৭১।

এগারো বার ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন। টেস্ট শতকের দিক থেকে চতুর্থ অবস্থানে ছেন ৩৮টি সেঞ্চুরি করেন। তার আগে তালিকায় আছেন শচীন টেন্ডুলকার, জ্যাক ক্যালিস এবং রিকি পন্টিং। ক্যারিয়ারের অর্ধেকটাই কাটিয়ে দিয়েছে উইকেটের পেছনে।

ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টানা চার ম্যাচে শতক করেছেন কুমার সাঙ্গাকারা।

তবে সর্বশেষ খেলা তিন টেস্টে কোনও রানই সংগ্রহ করতে পারেননি সাঙ্গাকারা। গল টেস্টে দুই ইনিংসে সাঙ্গাকারা যথাক্রমে ৫ ও ৪০ রান সংগ্রহ করেন।

এদিকে এক ম্যাচ জিতে স্বাগতিকরা এগিয়ে থাকায় তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দড়িয়েছে দুই শিবিরেই।

গলে প্রথম টেস্টে নাটকীয় জয় পাওয়ার পর শ্রীলঙ্কা দলের অধিনায়ক এঞ্জেলো ম্যাথুজ বলেন, সাঙ্গাকারার এই আবেগ ঘন বিদায় মুহূর্তকে রাঙ্গিয়ে তুলতে এই ম্যাচটি জয়ের জন্য মুখিয়ে রয়েছে দল। গতকাল তিনি বলেন, ‘আমরা ভালো কিছু দিয়ে তার ক্যারিয়ারের সমাপ্তি টানতে চাই। এ জন্য আমরা সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করব’ ।

স্বাগতিকরা চাইছে ২য় ম্যাচে জয় নিয়ে সাঙ্গাকারার বিদায় স্মরণীয় করে রাখতে। আর সিরিজে সমতা আনতে জয়ের লক্ষ্য সফরকারীদের।

আফগানিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

আফগানিস্তানকে বেশ সহজে হারিয়ে তৃতীয় সাফ অনুর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপ ফুটবলের ফাইনালে স্থান করে নিয়েছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। রোববার আসরের প্রথম সেমিফাইনালে শক্তিশালী আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে দুর্দান্ত ছিলো শাওন হোসেনদের খেলা। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে বাংলাদেশের জয়ের নায়ক মিডফিল্ডার সাদ হোসেইন। ম্যাচের ৫০ মিনিটে গোল করে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়েছিলেন তিনি।
সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে চলমান এই ম্যাচটি শুরু হওয়ার কথা ছিল বেলা ৩টায়। কিন্তু বৃষ্টির কারণে তা এক ঘন্টা পিছিয়ে বিকাল ৪টায় শুরু হয়েছে। মাঠ কর্দমাক্ত থাকায় স্বাভাবিক ফুটবল নৈপুণ্য দেখাতে বেগ পেতে হয়েছে দুই দলকেই। এরপরও একাধিকবার গোলের সুযোগ পেয়েছে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের কিশোর ফুটবলাররা। তবে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি কোনো দলই। শেষ অব্দি তাই গোলশূন্যভাবেই শেষ হয়েছে ম্যাচের প্রথমার্ধের খেলা। তবে দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরুর ৫ মিনিট পরই গোলের দেখা পেয়েছে স্বাগিতকরা।
উল্লেখ্য, সিলেট চলছে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার ৬টি দেশের অংশগ্রহণে সাফ অনুর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপ ফুটবলের এই আন্তর্জাতিক আসর। গ্রুপ পর্বের খেলা শেষে সেমিফাইনালের টিকেট কেটেছে বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, নেপাল ও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত। অন্যদিকে, বিদায় নিতে হয়েছে মালদ্বীপ ও শ্রীলঙ্কাকে।

সাপের সঙ্গে সেলফি : কামড় খেয়ে হাসপাতালে

সাপের সঙ্গে সেলফি তুলতে গেলে কামড় দিয়েছে সাপ।ফেসবুক কিংবা ইনস্টাগ্রাম সবখানেই চলছে সেলফির দাপট। কিন্তু সাপ কী আর তা বোঝে? যুক্তরাষ্ট্রের টড ফ্যাসলার নামের এক সেলফিপ্রেমীর শখের বারোটা বাজিয়েছে বিষধর এক র‍্যাটলস্নেক। র‍্যাটলস্নেকের সঙ্গে সেলফি তুলতে গিয়ে কামড় খেয়ে এখন হাসপাতালের বিল গুনতে হচ্ছে এক লাখ তিপ্পান্ন হাজার এক শ একষট্টি ডলার বা প্রায় এক কোটি ১৭ লাখ টাকা। খবর পিটিআইয়ের।
অবশ্য র‍্যাটলস্নেক নিয়ে নাড়াচাড়ার অভ্যাস যুক্তরাষ্ট্রের টড ফ্যাসলারের বেশ আগে থেকেই ছিল। বাড়িতে একটি পোষা র‍্যাটলস্নেকও ছিল তাঁর। কিন্তু জুলাই মাসের চার তারিখটি ছিল টডের জন্য একটু ভিন্নরকম। ভেবেছিলেন র‍্যাটলস্নেক পোষার বিদ্যাটা একবার কাজে লাগিয়ে দেখবেন। ঝোপের মধ্যে এক বুনো র‍্যাটলস্নেকের সঙ্গে সেলফি তুলবেন। কিন্তু ওই র‍্যাটলস্নেকটি নিশ্চয়ই সেলফির বিষয়টি ঠিক বুঝে উঠতে পারেনি! কামড়ে বিষ ঢেলেছে ফ্যাসলারের হাতে।
ফ্যাসলার জানিয়েছেন, র‍্যাটলস্নেকের কামড় খাওয়ার পর পুরো শরীর কাঁপতে থাকে আর অবশ হতে শুরু করে। মনে হচ্ছিল মুখ থেকে জিহ্বা বের হয়ে যাচ্ছে, চোখ দুপাশে সরে যাচ্ছে।
সাপের কামড় খাওয়ার পর দ্রুত ফ্যাসলারকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর বিষনাশক ইনজেকশন দিতে হয় তাঁকে। হাসপাতালে থেকে একপর্যায়ে সুস্থ হয়ে ওঠেন টড। তবে র‍্যাটলস্নেকের সঙ্গে সেলফি তোলার ওই শখের জন্য হাসপাতালের বিল দেখে তো তার চোখ চড়কগাছ। বিল হয়েছে- এক লক্ষ তিপ্পান্ন হাজার এক শ একষট্টি ডলার মাত্র!

সাপের কামড় থেকে ফ্যাসলার যে শিক্ষা হয়েছে তাতে তিনি আর র‍্যাটলস্নেকের ধারেকাছে ভিড়তে চান না। বাড়িতে পোষা সাপটিও ছেড়ে দিয়েছেন বনের মধ্যে।

মুস্তাফিজ যেখানে অনন্য! টেস্ট ওয়ানডে দুই অভিষেকেই ম্যান অব দ্যা ম্যাচ

man-of-the-match-mustafizur-600x380
বৃষ্টির বাগড়ায় চিটাগাং টেস্ট ড্র হলেও এই ম্যাচেও একটা অনন্য কীর্তি যোগ হলো মুস্তাফিজুর রহমানের নামের পাশে। এই টেস্টে ম্যাচ সেরা হয়েছেন এই বাঁ-হাতি পেসার। অভিষেকেই ম্যাচ সেরা হয়েছিলেন ওয়ানডেতেও। ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ওয়ানডে ও টেস্ট দুই ধরনের ক্রিকেটে অভিষেকেই ম্যাচ সেরা হওয়ার প্রথম কীর্তি গড়লেন এই তরুণ।
অভিষেকের পর থেকেই একের পর কীর্তির পাশে নিজের নাম লেখাচ্ছেন। ‘রেকর্ড গড়া তো আপনার কাছে ডাল-ভাত হয়ে গেছে!’ মন্তব্যটা করতেই হো হো করে হেসে উঠলেন। হাসি সামলে কেবল বললেন, ‘সব আল্লাহর ইচ্ছা।’
ড্রেসিং রুমে নাকি বেশ সপ্রতিভ। বাইরে থেকে অবশ্য বোঝার উপায় নেই। তবে ২২ গজে নিজের বাড়ির উঠোনের চেয়েও বেশি সপ্রতিভ। মাঠে এত স্বচ্ছন্দ, মনেই হয় না আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়েছে মাত্র চার মাস আগে। সারল্যমাখা চেহারায় একেকটা ফণা তুলে গুঁড়িয়ে দিচ্ছেন প্রতিপক্ষের ব্যাটিং লাইন-আপ। একটার পর একটা কীর্তি গড়ে অল্প সময়ে সব আলো কেড়ে নিয়েছেন নিজের দিকে।
অভিষেকে চমক দেখানো খেলোয়াড়ের সংখ্যা নেহাতই কম নয়। টেস্ট এবং ওয়ানডে ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত ১০০ জন খেলোয়াড় অভিষেকে ম্যাচ সেরা হয়েছেন। কিন্তু টেস্ট এবং ওয়ানডে অভিষেকেই ম্যাচসেরা হতে পারেননি তাঁরা কেউই। মুস্তাফিজের এই অর্জন তাই অনন্য।
দারুণ এ রেকর্ড গড়ে যারপরনাই খুশি। অবশ্য প্রতিক্রিয়া প্রকাশে যথারীতি পরিমিত, ‘ভালো তো লাগেই।’ কথা এমনিতে কমই বলেন। শুরুতে জড়তা থাকলেও এখন বেশ গুছিয়ে বলতে পারেন। সারল্যমাখা মুস্তাফিজই দুর্বোধ্য ধাঁধা হয়ে যান ডাকাবুকো সব ব্যাটসম্যানদের কাছে।
শুরুর এই প্রেরণা নিয়ে মুস্তাফিজ এগিয়ে যেতে চান আরও সামনে। সবচেয়ে বড় কথা, এসব রেকর্ড-টেকর্ডে বেশি মাথা ঘামাতে চান না। মুস্তাফিজের ভাবনায় কেবল দেশের জন্য কিছু করা, ‘আমার মূল লক্ষ্য অনেক দিন জাতীয় দলের হয়ে খেলা। দেশের জন্য আরও কিছু করা। দেশের সুনাম বয়ে আনতে ভূমিকা রাখা।’
মাত্র কয়েক দিনে জীবনে কত পরিবর্তন! কোটি মানুষের মুখে এখন ধ্বনিত হয় একটি নাম—মুস্তাফিজ! ১৬ কোটি মানুষের ভালোবাসার নাম—মুস্তাফিজ। দলের সাফল্যে যাঁর নাম সবার আগে আসে—মুস্তাফিজ!
হঠাৎ করে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে এলেও জীবনে কোনো পরিবর্তন অনুভব হয় না মুস্তাফিজের। এখানেও মুস্তাফিজের দর্শনটা আশ্চর্য সরল, ‘জীবনের কোনো পার্থক্য দেখি না। আগে যেরকম ছিলাম, এখনো সেরকমই আছি। এ ছাড়া কীই-বা বলার আছে। আমার জন্য দোয়া করবেন।’
তা আর বলতে। তার জন্য দোয়ায় মিলিত হয় ৩২ কোটি হাত!

বাংলাদেশের ব্যাটিং বিপর্যয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার জয়

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ৫২ রানের জয় পেল দক্ষিণ আফ্রিকা। সফরকারীদের দেয়া ১৪৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে বাংলাদেশ ১৮.৫ ওভারে ৯৬ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। শুরুতেই দুই ওপেনারকে হারিয়ে চাপে পড়া বাংলাদেশকে স্বপ্ন দেখাচ্ছিলো সাকিব-মুশফিক জুটি। এ জুটি বাংলাদেশকে বিভিন্ন দু:সময়ে হাল ধরার রেকর্ড রয়েছে। কিন্তু ৩৭ রানেই ভেঙে যায় তৃতীয় উইকেটের জুটি। মাত্র ১৭ রান করে ডুমিনিকে তুলে মারতে গিয়ে সীমানায় ধরা পড়েন বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। এরপর সাব্বির ও নাসিরও কাছাকাছি সময়ে ফিরে যান।

বাংলাদেশকে ১৪৯ রানের টার্গেট দেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। ডুপ্লেসিস-রুশোর ঝড়ো ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রথম টি-টুয়েন্টিতে নির্ধারিত ২০ ওভারে চার উইকেটে ১৪৮ রান সংগ্রহ করে প্রোটিয়ারা। ডুপ্লেসিস ৭৯ ও রুশো ৩১ রান করে অপরাজিত থাকেন। বাংলাদেশের পক্ষে আরাফাত সানি ২টি উইকেট শিকার করেন। আর নাসির ও সাকিব একটি করে উইকেট পান। রোববার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করা দক্ষিণ আফ্রিকার হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান এবি ভিলিয়ার্স প্রথম ওভারেই আরাফাত সানির বলে আউট হয়ে বিদায় নেন। ৪র্থ ওভারে নাসিরের বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন ডেঞ্জারম্যান হিসেবে খ্যাত ডি কক।
বাংলাদেশের হয়ে টি-টোয়েন্টি অভিষেক হচ্ছে উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান লিটন দাসের। এই ম্যাচে দলে নেই রুবেল হোসেন, রনি তালুকদার ও জুবায়ের হোসেন।

২০১১ সালের পর এই প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কোনো ম্যাচ খেলছে বাংলাদেশ। বিশ্বকাপের সেই ম্যাচে মাত্র ৭৮ রানে অলআউট হয়েছিল স্বাগতিকরা।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে এর আগে দুটি টি-টোয়েন্টি খেলে দুটিতেই হেরেছে বাংলাদেশ। সাম্প্রতিক সময়ে অবশ্য খুব ভালো ফর্মে আছেন মাশরাফি-সাকিবরা। পাকিস্তান ও ভারতের বিপক্ষে মোট সাতটি সীমিত ওভারের ম্যাচে জিতেছে ছয়টিতেই।
ভারতের বিপক্ষে চারজন পেসারের দল গড়েছিল বাংলাদেশ। আর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রাধান্য দেখা যাচ্ছে স্পিনারদের। দলে নেওয়া হয়েছে স্পেশালিস্ট স্পিনার আরাফাত সানি। পেসার হিসেবে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার সঙ্গে আছেন অভিষেক সিরিজে দুর্দান্ত নৈপুন্য দেখানো মুস্তাফিজুর রহমান। বাদ পড়েছেন রুবেল হোসেন।
বাংলাদেশের পক্ষে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে লিটন দাসের। তবে উইকেররক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন টেস্ট দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

কোপা আমেরিকার নতুন চ্যাম্পিয়ন স্বাগতিক চিলি

Cheli Football 2
শেষ পর্যন্ত জয় হলো চিলিরই। দেশের জার্সি গায়ে কোনো ট্রফিতে হাত রাখার আজন্ম সাধ আজ পূরণ ​হলো দেশটির।​ কোপা আমেরিকার ইতিহাসে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হলো চিলি।

বাংলাদেশ সময় শনিবার দিবাগত রাত দুইটায় শুরু হওয়া ম্যাচটিতে ছিল জমজমাট উত্তেজনা। তবে নির্ধারিত ৯০ মিনিট ও অতিরিক্ত ৩০ ​মিনিটেও প্রতিপক্ষের জালে বল ঢুকাতে পারেনি কোনো দল। অবশেষে টাইব্রেকারেই নির্ধারিত হয় ম্যাচের ফলাফল।

আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে দুই দলই দারুণ অ্যাটাকিং ফুটবল উপহার দিয়েছে দর্শকদের। তবে প্রথমার্ধের চেয়ে দ্বিতীয়ার্ধে কিছুটা অগোছালো ফুটবল খেলেছে দুদলই। খেলার ১০ মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারত স্বাগতিকেরা। তবে ভিদালের শর্ট দারুণভাবে রুখে দেয় আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক রোমেরো। ২৮ মিনিটেও দারুণ এক সুযোগ পেয়েছিল চিলি। তবে গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে পারেনি চিলির খেলোয়ার ভার্গাস। দ্বিতীয়ার্ধের ৮১ মিনিটেও দারুণ এক সুযোগ হাতছাড়া করেছেন চিলিয়ান তারকা অ্যালেক্সিস সানচেজ।

সুযোগ পেয়েছিল আর্জেন্টিনাও। ১৮ মিনিটে ডি-বক্সের ডান পাশ থেকে নেওয়া মেসির ফ্রি কিক আটকে দেয় চিলির গোলরক্ষক ব্রাভো। খেলার ৪৬ মিনিটেও দারুণ একটি সেভ করেন চিলির এই অধিনায়ক। ৯২ মিনিটে খেলার শেষ বাজি বাজার ঠিক আগ মুহূর্তে মেসির বাড়িয়ে দেওয়া পাশ ও লাভেজ্জির ক্রস থেকে গোল করতে ব্যর্থ হয় হিন্দুস্তান। অতিরিক্ত সময়ে দুদলই অনেকগুলো সুযোগ তৈরি করলেও গোল করতে পারেনি কোনো দল।

একটি ট্রফ্রির জন্য মরিয়া ছিলেন মেসি। ফাইনালের আগে বলেছিলেন, ‘আমাদের এই প্রজন্মটা দেশের হয়ে একটা ট্রফি জেতার জন্য মরিয়া। সত্যি বললে, আমাদের এই দলটার এখন একটা ট্রফি প্রাপ্য। গত বছর বিশ্বকাপে পারিনি, আশা করি এবার কোপায় পারব।’ তবে আজ পুরোটা সময়জুড়ে অনেকটা নিষ্প্রভ ছিল আর্জেন্টাইন তারকা মেসি। এ ছাড়া খেলার প্রথমার্ধের ২৮ মিনিটেই পায়ের মাংসপেশিতে টান লেগে মাঠ ছাড়তে হয় আর্জেন্টাইন খেলোয়াড় ডি মারিয়ার।

Scroll To Top

Design & Developed BY www.helalhostbd.net