শিরোনাম

Monthly Archives: নভেম্বর ২০১৪

জয় প্রধানমন্ত্রীর অবৈতনিক উপদেষ্টা, প্রজ্ঞাপন জারি

সজীব ওয়াজেদ জয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা পদে নিয়োগ পেয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার প্রকাশিত প্রজ্ঞাপনে এ কথা বলা হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক প্রশাসন দেওয়ান হুমায়ুন কবীর প্রজ্ঞাপনে স্বাক্ষর করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর উপ–প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন প্রথম আলোর কাছে এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, সজীব ওয়াজেদ জয়ের নিয়োগ অবৈতনিক এবং খণ্ডকালীন। এ সম্পর্কে জানতে চাইলে হুমায়ুন কবীর প্রথম আলোকে বলেন সজীব ওয়াজেদ জয় অবৈতনিক এবং খণ্ডকালীন নিয়োগ পাওয়ায় তিনি কোনো বেতন-ভাতা নেবেন না এবং নিজের কাজের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীকে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিষয়ে সহায়তা করবেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ও পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করবেন।
যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী জয় এতদিন মা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা ছিলেন। এখন তিনি প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টারও দায়িত্বে পালন করবেন। সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য অর্জনে জয় তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ হিসেবে সহায়তা করছেন।
গত সেপ্টেম্বরে নিউইয়র্কে এক অনুষ্ঠানে এক দর্শকের প্রশ্নের জবাবে তৎকালীন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী বলেছিলেন, জয় সরকারের কেউ না। ওই অনুষ্ঠানেই হজ নিয়ে এক মন্তব্যের জন্য দেশে ব্যাপক সমালোচনার মুখে তিনি মন্ত্রিত্ব হারান এবং আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত হন। গত মঙ্গলবার এক সভায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় প্রতি মাসে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা বেতন নিয়েছেন। এই তথ্য তৎকালীন মন্ত্রী ফাঁস করে দিয়েছেন। লতিফ সিদ্দিকীর চাকরিও চলে গেছে।’ এরপর বিএনপির অপর নেতা নেতা আ স ম হান্নান শাহ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় মন্ত্রী পদমর্যাদায় প্রতি মাসে দুই লাখ ডলার বেতন নিচ্ছেন। এ রকম বেতন রাষ্ট্রপতিও পান না।’

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অপর এক প্রজ্ঞাপনে ইকবাল সোবহান চৌধুরীকে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা নিয়োগ দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। তাঁর নিয়োগও অবৈতনিক এবং খণ্ডকালীন।

ইউনুসের আফসোস

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করার সুযোগ পাবেন, হলপ করে বলা যাচ্ছে না। পেলে সেটার দৈর্ঘ্যও কতটা হবে বলা কঠিন। আর তাই হয়তো দুর্দান্ত একটা সুযোগই হাতছাড়া করলেন ইউনুস খান। আগের তিন টেস্টেই সেঞ্চুরি করেছিলেন। আজ মনে হচ্ছিল, ফর্মের টাট্টু ঘোড়ায় সওয়ার পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান টানা চতুর্থ টেস্টে পঞ্চম সেঞ্চুরিটা তুলে নেবেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ফিরলেন ৭২ রান করে।
ইউনুসের মতো সেঞ্চুরি হাতছাড়ার দুঃখে পুড়েছেন আজহার আলীও। তিনিও সত্তরের ঘরে (৭৫) গিয়ে আউট হয়েছেন। ৪৪ রান করে ফিরেছেন আসাদ শফিক। দুবাই টেস্টের লাগাম এখনো নিউজিল্যান্ডের হাতে। পাকিস্তান তৃতীয় দিন শেষ করেছে ৬ উইকেটে ২৮১ রান নিয়ে। নিউজিল্যান্ড ১২২ রানে এগিয়ে। তিন দিনেও দুই দলের একটা করে ইনিংসও শেষ না হওয়াতে ঈশাণ কোণে ড্রটাই উঁকি দিচ্ছে। তবে আগামীকাল প্রথম সেশনে কী হয়, সেটির ওপর নির্ভর করছে সবকিছু।
ইউনুসের জন্য এটাই একটা শাখের করাত। দলীয় দৃষ্টিকোণ থেকে তিনি অবশ্যই চাইবেন দল যেন লাঞ্চ তো বটেই, পরের সেশনটাতেও ব্যাটিং টেনে নিয়ে যায়। তাহলে ড্র অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যাবে। যদিও তাতে তাঁর সেঞ্চুরি করার মতো সময় মেলার সম্ভাবনা কমে যাবে। বরং কাল সাতসকালে পাকিস্তান অলআউট হয়ে গেলে এই ম্যাচে ফল দেখার সম্ভাবনা জাগবে। আর ইউনুসও হয়তো আরেকবার সুযোগ পাবেন ব্যাট করার। সুযোগ পাবেন টানা চতুর্থ টেস্টে সেঞ্চুরি করার।
টানা পাঁচ টেস্টে সেঞ্চুরি আছে পাকিস্তানের মোহাম্মদ ইউসুফের, যেখানে ইউসুফের সঙ্গী জ্যাক ক্যালিস আর গৌতম গম্ভীর। আর টানা ছয় টেস্টে সেঞ্চুরি করে বিশ্ব রেকর্ডটা এখনো নিজের দখলে রেখেছেন স্যার ডন ব্র্যাডম্যান। চতুর্থ সেঞ্চুরি সেই পথে আরেকটু এগিয়ে দেবে ইউনুসকে। আর যদি তা না হয়, আজকের ২৮ রানের শূন্যতা ভীষণ পোড়াবে তাঁকে, ভীষণ!

ফেনসিডিলসহ ‘চিকিৎসক’ ও ‘ছাত্রলীগ নেতা’ আটক

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থেকে ফেনসিডিল বহনের অভিযোগে তিন ব্যক্তিকে আটক করেছে র‌্যাব। র‌্যাবের ভাষ্য অনুযায়ী, গতকাল সোমবার রাত আটটার দিকে উপজেলার হোসেনাবাদ এলাকা থেকে তাঁদের আটক করা হয়।

র‌্যাব বলেছে, আটক ব্যক্তিদের নাম আহনাফ করিম আসিব, শরিফ মো. লোকমান ও মো. মোন্নাফ। তাঁদের ব্যবহৃত একটি প্রাইভেট কার ও গাড়িটি থেকে ‘উদ্ধার করা’ ৭৯ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করা হয়েছে বলে দাবি করেছে র‌্যাব।
র‌্যাব বলেছে, আহনাফ করিম আসিব নিজেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক মেডিকেল অফিসার এবং শরিফ মো. লোকমান নিজেকে ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক (জুনিয়র) হিসাবে পরিচয় দেন। তাঁরা ফেনসিডিল ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছিলেন বলে জানায় র‌্যাব।

র‌্যাব-১২ কুষ্টিয়া ক্যাম্প ও দৌলতপুর থানা সূত্রে জানা যায়, র‌্যাবের সদস্যরা হোনেসাবাদ বাজারে বিভিন্ন গাড়িতে তল্লাশি চালান। এ সময় একটি প্রাইভেট কারের ভেতর থেকে ৭৯ বোতল ফেনসিডিল পাওয়া যায়।
দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক বলেন, আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ফেনসিডিলসহ আটক তিনজনকে দৌলতপুর থানায় সোপর্দ করেছে র‌্যাব। মাদকদ্রব্য আইনে তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাঁদের কুষ্টিয়া কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ইংল্যান্ডে স্থায়ীভাবে বসবাসে নতুন নিয়ম আসছে

নিউজ ডেস্ক, ১৬ নভেম্বর ২০১৪:   ওয়ার্ক পারমিটে ব্রিটেনে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ আসছে আবার। আগামী বছর থেকে এ নিয়ম কার্যকর হবার কথা রয়েছে। জানা গেছে, ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যারা ব্রিটেনে স্থায়ীভাবে বসবাস করতে চান তাদের বার্ষিক ৩৫ হাজার পাউন্ড দেখাতে হবে। এছাড়াও এখন থেকে ৫ বছর ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় কাজ করার পর স্থায়ীভাবে বসবাসের আবেদনের যোগ্য হবেন।
হোম সেক্রেটারী তেরেসা জানায়, ২০১৬ সালের এপ্রিল থেকে এই নিয়ম চালু হবে। এ নিয়মের ফলে নন ইউরোপিয়ানরা ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় এসে সেটেল্টমেন্টের আবেদন উল্লেখযোগ্য হারে কমে যাবে (বিবিসি)।
তিনি বলেন, অতীতে ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় এসে ৫ বছর থাকার পরই স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য আবেদনকরার সুযোগ ছিল। ২০১০ সালে এ সুযোগ কম করে দেয়া হয়। নতুন করে আবার ২০১৬ সাল থেকে এই নিয়ম চালু করা হচ্ছে।
তবে, এবার ৫ বছর বসবাসের পাশাপাশি বাধ্যতামূলকভাবে বছরে ৩৫ হাজার পাউন্ড আয় দেখাতে হবে। এ নিয়মের পর ওয়ার্কপরমিট ভিসায় ব্রিটেনে যাওয়ার সুযোগ বাড়লেও স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ কমে যাবে।
উল্লেখ্য, ব্রিটিশ কোয়ালিশন সরকার ক্ষমতায় এসেই ঘোষণা দিয়েছিলো, গণহারে অভিবাসী আগমন ঠেকাতে। এ লক্ষ্যে লিবডেম-কনজারভেটিভ জোট সরকার বেশকিছু পদক্ষেপও গ্রহন করে। সরকারের এই পদক্ষেপ ফলপ্রসূ হয়েছে বলে সমপ্রতি দাবী করেছেন, দেশটির হোম সেক্রেটারী থেরেসা মে এমপি।

টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলে কমিশনার নিয়োগের সিদ্ধান্ত

সৈয়দ সামি, ০৪ নভেম্বর ২০১৪:   বাঙালি অধ্যুষিত পূর্ব লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলে ‘কমিশনার নিয়োগে’র সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাজ্যের সরকার। কাউন্সিলের ‘অনুদান’ (গ্রান্টস) প্রদান এবং কাউন্সিলের ‘ঘরবাড়ি (প্রোপার্টি) বেসরকারি মালিকানায়’ ছেড়ে দেওয়ার প্রক্রিয়ায় অনিয়ম এবং অস্বচ্ছতার প্রমাণ মেলায় দেশটির সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

 কমিশনার নিয়োগ করা হলেও টাওয়ার হ্যামলেটসের মেয়র বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত লুতফুর রহমান তার পদে বহাল থাকছেন। তবে অনুদান প্রদান, ঘরবাড়ি হস্তান্তর এবং কাউন্সিলে লোকবল নিয়োগসহ সব কর্মকাণ্ড তদারকি করবে তিনজন কমিশনার। দেশটির কমিউনিটিজ বিষয়ক সেক্রেটারি এরিক পিকলস আজ মঙ্গলবার হাউজ অব কমন্সে এমন সিদ্ধান্তের কথা জানান। এর আগে টাওয়ার হ্যামলেটস নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে অডিট ফার্ম প্রাইস ওয়াটার হাউজ কুপার্স (পিডব্লিউসি)।

টাওয়ার হ্যামলেটসের কেবিনেট সদস্যদের সবাই বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত। ২০১০ সালে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে বিরোধের জেরে লুতফুর রহমান লেবার পার্টি থেকে বহিষ্কৃত হন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে জয়ী হন। গত মে মাসে তিনি লেবার পার্টির প্রার্থীকে হারিয়ে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হন। নির্বাচন নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ তুলে লেবার পার্টি। গত নির্বাচনের আগে টাওয়ার হ্যামলেটস নিয়ে অনুসন্ধানী প্রামাণ্যচিত্র প্রচার করে বিবিসি। ৩১ মার্চ প্রচারিত এ প্রামাণ্যচিত্রে লুতফুর রহমান গ্রান্টস প্রদান এবং ঘরবাড়ি হস্তান্তরের ক্ষেত্রে বাংলাদেশি এবং মুসলিমদের বাড়তি সুবিধা দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করা হয়। এর প্রেক্ষিতে ৪ এপ্রিল অনিয়ম তদন্তে পিডব্লিউসিকে নিয়োগ দেন এরিক পিকলস। মেয়র বরাবরই এসব অভিযোগকে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র এবং মিথ্যা বলে দাবি করে আসছেন।

এ ব্যাপারে এরিক পিকলস বলেন, এখানে ‘বিভাজন এবং নোংরা’ রাজনীতির চর্চা হচ্ছে। এবার ভবিষ্যৎ নির্বাচনে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে শিগগিরই নতুন করে রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হবে।
প্রসঙ্গত, গত মে মাসে অনুষ্ঠিত মেয়র নির্বাচনে অনিয়মের বিষয়ে একটি পিটিশন এখনও আদালতে নিষ্পত্তির অপেক্ষায় রয়েছে। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপি রুশনারা আলী এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন।
পিডব্লিউসি এর প্রতিবেদনে বলা হয়, অনুদান পাওয়ার ‘যোগ্য নয়’ এমন কিছু সংগঠনকে অনুদান দেওয়া হয়েছে। অন্তত তিনটি কাউন্সিল প্রোপার্টি এমন লোকের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে যারা মেয়রের সঙ্গে সম্পৃক্ত। সময় শেষ হওয়ার পরও টেন্ডার জমার ঘটনাও ঘটেছে। এছাড়া উপদেষ্টা নিয়োগে অনিয়ম এবং প্রচারণা চালিয়ে জনগণের অর্থের অপচয় করা হয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। সার্বিকভাবে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল করদাতাদের অর্থের উত্তম ব্যবহার এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণে যথাযথ প্রক্রিয়া মানতে ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করা হয় প্রতিবেদনে। তবে এজন্য কাউকে ব্যক্তিগতভাবে দায়ী করা হয়নি।

এরিক পিকলস আরও বলেন, কাউন্সিলের সাংবিধানিক তিনটি পদে (হেড অব সার্ভিস, চিফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার এবং মনিটোরিং অফিসার) স্থায়ী নিয়োগ দিতে ব্যর্থ হয়েছে টাওয়ার হ্যামলেটস। যা সুশাসন এবং স্বচ্ছতা নিশ্চিতের ক্ষেত্রে বড় উদ্বেগের বিষয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মেয়র লুতফুর রহমানের পুরো মেয়াদ অর্থাৎ ২০১৭ সালের মে পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন কমিশনাররা।
তবে সরকারের সিদ্ধান্তের বিষয়ে আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলকে ১৪ দিনের সময় দেওয়া হয়েছে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল কিংবা মেয়র লুতফুর রহমানের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

পশু বাচাতে পশুপ্রেমীদের নগ্নকাণ্ড!

সৈয়দ সামি, ৩ নভেম্বর ২০১৪, লন্ডন : মানুষ বিভিন্ন উপায়ে প্রতিবাদ করে। কিন্তু লন্ডনের পশুপ্রেমীরা প্রতিবাদের নতুন এক ভঙ্গি দেখালেন, যা রীতিমতো বিশ্বজুড়ে আলোচনার বিষয়বস্তুতে পরিণত হয়েছে।

বিশ্ব নিরামিষভোজী দিবস উপলক্ষে শনিবার লন্ডনের ট্রাফালগার স্কয়ারে জড়ো হন শত শত পশুপ্রেমী। এ সময় নগ্ন অবস্থায় গায়ে রক্ত মেখে পশু হত্যার প্রতিবাদ জানান তারা। নগ্ন অবস্থায় তারা স্কয়ারে শুয়ে পড়েন। মেতে ওঠেন খুনসুটিতে।

pra

প্রতিবাদকারীরা বিভিন্ন প্ল্যাকার্ডও নিয়ে আসেন। প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘জীবনকে নির্বাচন করুন নিরামিষভোজী হিসেবে’ ও ‘প্রতিবছর এক বিলিয়ন পশু হত্যা করা হয় মাংসের জন্য, এগুলো বন্ধ করতে হবে’।

যুক্তরাজ্যের পেটাসহ বিভিন্ন পশু অধিকার সংরক্ষণ সংগঠন পথচারীদের মাঝে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করে। পেটা নিরামিষ ভোজে আগ্রহী করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।
পেটার পরিচালক মিমি বেকহেচি বলেন বলেন ‘পশুরা ব্যথা, ভয়, ভালোবাসা, উল্লাস সবকিছুই অনুভব করতে পারে এবং বিলিয়নের বেশি পশু প্রতিবছর হত্যা করা হচ্ছে, যা আসলে পরিবেশের জন্য খুব বড় হুমকি।’

এ অবস্থা বিশ্বে আর চলতে পারে না। তাই ব্যতিক্রমধর্মী এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।  পশু হত্যার ব্যাপারে মানুষ যাতে সচেতন হয়, সে জন্য এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

তথ্যসূত্র : দ্য ইনডিপেনডেন্ট।

Scroll To Top

Design & Developed BY www.helalhostbd.net