শিরোনাম

Monthly Archives: মার্চ ২০১৭

মিন্টু কান্তি দাশ’র কবিতা

 

Mintu

 

মনে পরে জয়শ্রী

 

পঁচিশ বছর পেরিয়ে,
আজও মনে পরে জয়শ্রী তোমায়,

বলেছিলে তুমি,
আমি দেখতে কালো,
আমার চেহারা দেখতে সুন্দর নয়,
তাতে কিছু যায় আসেনি তোমার,
তবুও বেসেছিলে ভালো।
বলেছিলে আমি যেন একটি রোদ্র চশমা পড়ি,
বলেছিলে আমি যেন সাদা শার্টের সাথে কালো
সুটটাই পরি ,আরও বলেছিলে কালো
বুটজোড়া যেন আয়নার মত চাকচিক্য হয়,
দেখতে চেয়েছিলে আমায় চাঞ্চল্য স্মার্ট।
অপেক্ষায় কাটতো না প্রহর,
রোজরোজ মনের ক্যানভাসে ছবি আঁকতাম
তোমার, গেইট থেকে মাঠ পেরিয়ে কলেজের
দোতালার করিডোর পর্যন্ত পায়চারি করতাম,
বিচলিত থাকতাম প্রতিটিক্ষণ।
শুধু একপলক তোমায় দেখবো বলে।
বাস্তবতা বড় নিষ্ঠুর তুমি,
একদিন স্বপ্নভঙ্গে ফিকে হয়ে যায় সব
আয়োজন, হলোনা তোমার সাথে
আর কখনো দেখা ,খুব কাছে পেয়েও
হারিয়েছিলাম তোমায়, আজ মনে পরে সেই
অনুভূতি, আবার ফিরে পেতে চাই তোমায়।

নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশ সরকার বিরোধী অপপ্রচারের অভিযোগ ।। পুলিশি বাধায় সভা পণ্ড

নিউ ইয়র্ক, ৩০ মার্চ: যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বাংলাদেশ ডেমোক্রেসি কনফারেন্স’ নামে বাংলাদেশিদের আয়োজিত একটি কর্মসূচি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ও আমেরিকান শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদেই ভণ্ডুল হয়ে গেছে। পুলিশ ডেকে আয়োজকদের হটিয়ে দেওয়া হয়েছে ক্যাম্পাস থেকে।IMG_0986-300x225
নিউইয়র্কে অবস্থানরত বিএনপি ও জামায়াতপন্থিরা এই কর্মসূচির আয়োজন করে বলে করেছে বলে প্রতিবাদকারীরা অভিযোগ করেন।  স্থানীয় সময় ২৯ মার্চ (বুধবার) সন্ধ্যায় এই অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়।

আয়োজকরা অনুষ্ঠানটিতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অত্যন্ত নেতিবাচক বক্তব্য দিতে থাকলে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান প্রতিবাদ করেন এবং তিনি বলেন বাংলাদেশে সুন্দর গণতন্ত্র বিরাজমান, গণতন্ত্রে জন্য বাংলাদেশের মানুষ যে পরিমান ত্যাগ শিকার করেছে তা পৃথীবিতে নজির নাই। তিনি বলেন আমেরিকার থেকে বাংলাদেশের বর্তমান গণতন্ত্র ব্যবস্থা অনেক ভাল। আপনারা যা বলছেন এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াIMG_0993-300x225ট। দর্শক সারিতে থাকা আমেরিকান তথা অন্যান্য দেশের শিক্ষার্থীরাই তার প্রতিবাদ করেন। এ সময় একাধিক মার্কিন শিক্ষার্থী বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি সম্পর্কে তাদের ধারনার কথা তুলে ধরেন এমনকি বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় বাংলাদেশের উন্নয়ন নিয়ে প্রকাশিত খবরও তুলে ধরেন। এসময় আয়োজকদের মিথ্যাবাদী বলে ধুয়ো উঠতে থাকে এবং অনেকেই তাদের বক্তব্যের প্রতিবাদ করেন। এ ধরনের বক্তব্য বন্ধ করতেও আহ্বান জানান তাঁরা।

আয়োজকদের মধ্যে অন্যতম একজন কাউসার মুমিন ও দিনা সিদ্দিকী নামে দুই বাংলাদেশি। বিএনপি জামায়াত সরকারের আমলে জাতিসংঘ মিশনে কাজ নিয়ে কাউসার মুমিন নিউইয়র্কে অবৈধভাবে থেকে যান বলে অনেকে অভিযোগ করেন। আর দিনা সিদ্দিকী ঢাকার ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির শিক্ষক, যিনি এখন নিউইয়র্কে অবস্থান কIMG_0985-300x225রছেন।অনুষ্ঠানে হেরিটেজ ফাউন্ডেশনের লিসা কার্টিস, ফরেন পলিসি ম্যাগাজিনের সাংবাদিক জোসেফ আলচিন, ‘লন্ডন স্কুল অফ ইকোনোমিক্স’-এর হুমায়ুন কবির এবং মানবাধিকার ও শ্রমিক অধিকার বিষয়ক অ্যাটর্নি শমতলী হককে আমন্ত্রণ জানানো হলেও তাদের অনেকেই ছিলেন অনুপস্থিত।

আর যারা উপস্থিত ছিলেন তারাও আয়োজকদের বক্তব্যের কড়া প্রতিবাদ করে অনুষ্ঠান ত্যাগ করেন।

দিনা সিদ্দিকী ও কাউসার মুমিন ‘আর্চার ব্লাড সেন্টার ফর ডেমোক্রেসি’ নামে একটি সংগঠন গড়েছেন, যার ব্যানারে এই কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। সেমিনারে আরো উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ. সহ–সভাপতি সৈয়দ বসরাত আলী, সামছুদ্দিন আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমেদ, মহিউদিন দেওয়ান, আব্দুল হাসীব মামুন, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান টুকু, মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিযা চৌধরী. ইষ্ট আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক শাহীন আজমল .যুক্তরাস্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ডা: মাসিদুল হাসান, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সদস্য শাহানারা রহমান, খোরশেদ খন্দকার, আব্দুল হামিদ প্রমুখ । এসময় যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ. সেচ্ছাসেবক লীগ এবং ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

২৩ এপ্রিল আল্লামা ফুলতলী (রহ:)’র ইসালে সাওয়াব মাহফিল।।ইসালে সাওয়াব বাস্তবায়ন কমিটির সভা

বার্মিংহাম: হযরত আল্লামা ফুলতলী ছাহেব ক্বিবলা (রহ:) এর ইসালে সাওয়াব মাহফিল বাস্তবায়ন কমিটি মিডল্যান্ডস ইউকে এর কার্যকরী পরিষদের এক দায়িত্বশীল সভা গত ২২ মার্চ বুধবার দুপুরে স্থানীয় বাংলাদেশ মাল্টিপারপাস সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়।
কার্যকরী পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ নাছির আহমদের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি প্রিন্সিপাল মাওলানা এম এ কাদির আল হাসানের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন স্যান্ডওয়েল কাউন্সিলের সাবেক ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলর আহমেদুল হক এমবিই, মাওলানা রফিক আহমেদ, মোঃ গাবরু মিয়া, মাওলানা মুফতি রফিক আহমদ, মোঃ এমদাদ হোসাইন, মোঃ মিসবাউর রহমান, মাওলানা বদরুল হক খান, মাওলানা মোঃ হুসাম উদ্দিন আল হুমায়দী, হাজী হাসন আলী, মোঃ আব্দুল হাই, মোহাম্মদ শাহজাহান, হাফিজ আলী হোসেন বাবুল, হাজী সাহাব উদ্দিন, হাজী তেরা মিয়া, ক্বারি মাহফুজুল হাসান খান, হাফিজ কবির আহমেদ প্রমুখ।
মাওলানা হুসাম উদ্দিন আল হুমায়দীর পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া সভায় বিগত বছরের রিপোর্ট পেশ করা হলে সভার উপস্থিতি রিপোর্টের ভ’য়শী প্রশংসা করেন। সভায় আগামি ২৩ এপ্রিল বার্মিংহামের ওয়েস্টব্রমউইচে লতিফিয়া ফুলতলী কমপ্লেক্সে আল্লামা ফুলতলী (রহ:)’র ইসালে সাওয়াব মাহফিল ২০১৭ আয়োজনের সিদ্ভান্ত গ্রহণ করা হয়।
সভা শেষে বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় মুনাজাত করা হয়।-সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

লন্ডন বারা অব ব্রেন্টের মেয়র সম্মাননায় ভূষিত হলেন মিনা দম্পতি

লন্ডনঃ মূলধারার ব্রিটিশ রাজনীতিতে ও কমিউনিটি উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখায় লন্ডন বারা অব ব্রেন্টের মেয়র সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন বিগত সাধারণ নির্বাচনে কনজার্ভেটিভ দলীয় এমপি প্রার্থী ও উইম্যান নেটওয়ার্কের প্রেসিডেন্ট মিনা রহমান এবং  তার স্বামী  রাজনীতিক গয়াছুর রহমান গয়াছ। ব্রেন্ট কাউন্সিলের মেয়র কাউন্সিলার পারভেজ আহমেদ গতকাল দুপুরে  মেয়র পার্লারে আয়োজিত এক বিশেষ অনুষ্ঠানে অন্যান্য সম্মাননা প্রাপ্তদের সাথে মিনা রহমান ও গয়াসুর রহমানের হাতে এই সম্মাননা স্মারক তুলে দেন। মূলধারার রাজনীতির সাথে কমিউনিটি সম্পৃক্ততা ঘটাতে বিশেষ অবদানের জন্যে মিনা রহমানকে এবং বাঙালী কমিউনিটির উন্নয়নে অবদান রাখায় তার স্বামী গয়াসুর রহমানকে এই সম্মাননা জানান ব্রেন্ট মেয়র পারভেজ আহমেদ।

সম্মাননা গ্রহন করে এক প্রতিক্রিয়ায় মিনা রহমান বলেন, এই সম্মান আমার একার নয়, আমাদের সবার। তিনি  এই সম্মাননা স্মারক তাঁর নির্বাচনী এলাকার জনগনকে উৎসর্গ করে বলেন, কমিউনিটির কাজ করতে গিয়ে আমি আমার এলাকার জনগনের সহায়তা পেয়েছি বলেই আজ এ সম্মান পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছি। সুতরাং এ সম্মান আমার একার নয়, আমাদের সবার। তিনি তাকে এই সম্মাননা দেয়ায় ব্রেন্ট মেয়র কাউন্সিলার পারভেজ আহমেদকে ধন্যবাদ জানান। গয়াসুর রহমান তাঁর প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এমন সম্মাননা দায়িত্ব আরও বাড়িয়ে দেয়। বিগত দিনে কমিউনিটির সুখ-দু:খে যেমন পাশে থেকেছি, এখন আরও বেশি করে থাকতে হবে, এই সম্মাননা এমন বার্তা নিয়েই আমার কাছে এসেছে বলে আমি মনেকরি। সুতরাং দায়িত্ব এখন আরও বেড়ে গেলো। তিনি কমিউনিটির প্রতি তাঁর অঙ্গীকার যাতে পালন করতে পারেন, তার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।  তাকে সম্মাননা দেয়ার তিনিও মেয়র পারভেজ আহমেদকে ধন্যবাদ জানান। এখানে উল্লেখ্য মিনা রহমান এবং তার স্বামী গয়াছুর রহমান গয়াছ  রাজনীতির পাশাপাশি কমিউনিটির কল্যাণে কাজ নিরলস ভাবে করে যাচ্ছেন।

প্রবাসিরা দেশের জন্যে একেকজন দূত হিসেবে কাজ করেন : সাংবাদিক ফরিদা ইয়াসমিন

লন্ডনঃ প্রবাসিরা দেশের জন্যে বিদেশের মাটিতে একেকজন দূত হিসেবে কাজ করেন, প্রবাসিরাই বিদেশিদের কাছে আমাদের ভাষা সংস্কৃতিকে তুলে ধরছেনে। এমন্তব্য জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধার সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিনের। ২৩ মার্চ বিকেলে পূর্ব লন্ডনের বিশ্ববাংলািনউজটিুয়েন্টিফোর ডটকম অফিসে ‘‘ বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরাম’’ আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তিনি এমন্তব্য করেন। 4সাংবাদিক ফরিদা ইয়াসমিন লন্ডনের বাংলা মিডিয়ার প্রশংসা করে বলেন আজ থেকে এক’শ বছর আগে এখান থেকে বাংলা সংবাদ পত্রের যাত্রা শুরু হয়েছিল, এ ধারা এখনও অব্যাহত রয়েছে। এটি আমাদের জন্যে আনন্দের। ব্রিটেনে বাংলাভাষা ও সংস্কৃতির বিকাশে তিনি বাংলামিডিয়ার সাংবাদিকদের প্রশংসা করে বলেন আপনারা আমাদের ইতিহাস ঐতিহ্যকে তুলে ধরছেন। বিশ্ববাংলা নিউজ টুয়েন্টিফোরডটকমের সম্পাদক শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলালের সঞ্চালনায় ও বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরামের আহবায়ক মনির হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লন্ডনস্থ বাংলাদেশ মিশনের মিনিস্টার প্রেস সাংবাদিক নাদিম কাদির, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউনিসলের স্পিকার কাউন্সিলার খালিছ উদ্দিন আহমদ, সাংবাদিক গবেষক আনসার আহমদ উল্লাহ, জনমতের নিউজ এডিটর মোসলেহ উদ্দিন আহমদ, সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী। মতবিনিময় সভায় অন্যানের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন জামাল আহমদ খান, সাংবাদিক আহাদ চৌধুরী বাবু, সাংবাদিক অধ্যক্ষ সাহেদ রহমান, সাংবাদিক হেফাজুল করিম রাকিব, বাতিরুল হক সরদার, আনহার মিয়া, সায়েদুল হক, শেখ সামসুল ইসলাম, আব্দুল হাকিম প্রমুখ। অতিথিকে ফুল বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরামের পক্ষথেকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।

লন্ডনে সন্ত্রাসী হামলায় হামলাকারী ও পুলিশসহ চারজন নিহত।। ইসলামপন্থিদের সন্দেহ, সারারাত পুলিশের রেইড, বার্মিংহামে ৭ আটক

লন্ডনঃ বুধবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টে  পৃথক দুটি সন্ত্রাসী হামলায় হামলাকারী এবং পুলিশসহ চারজন নিহত আহত হয়েছেন বিশ জন । পার্লামেন্টের বাইরে ছুরি হাতে এক ব্যক্তি পুলিশের ওপর হামলা চালায়। BP-2 হামলার পর পুলিশের গুলিতে হামলাকারী নিহত হয়েছে। হামলায় ছুরিকাঘাতে আহত এক পুলিশেরও মৃত্যু হয়েছে। এর আগেই পার্লামেন্ট সংলগ্ন ওয়েস্টমিনিস্টার ব্রিজে একটি গাড়ি পথচারীদের ওপর তুলে দেওয়া হয়। এতে দুই পথচারী নিহত হয়েছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে। স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের পক্ষ থেকে হামলাকারীর পরিচয় এখনও প্রকাশ করা হয়নি। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গুলোতে হামলাকারীর ছবির পাশাপাশি রাস্তায় পড়ে থাকা ছুরির ছবিও প্রকাশ করা হয়েছে। হামলার সময় হাউজ অব কমন্সে  অধিবেশন  চলছিল। তৎক্ষণাৎ অধিবেশন স্থগিত করা হয় এবং প্রধানমন্ত্রীকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়। তাৎক্ষনিক ভাবে পার্লামেন্টের সদস্যদের  হাউজ অব কমন্সে নিজ নিজ কক্ষে অবস্থান করতে বলা হয়, পরে অবশ্য সকলকে নিরাপেদ সরিয়ে নেয়া হয়।  এসময় আশপাশে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। তাৎক্ষনিক ভাবে হামলাকারীর পরিচয় প্রকাশ না করলেও কেন এই হামলার ঘটনা ঘটেছে, এর সাথে আইএস বা অন্য কোনসন্ত্রসী গোষ্ঠীর যোগসূত্র আছে কি না তা গোয়েন্দা সংস্থাগুলো খতিয়ে দেখছে।  ২২ মার্চ  স্থানীয় সময় বিকেল পৌনে ৩টায় এ ঘটনা ঘটে। এর পর থেকে সমগ্র লন্ডনের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।BP-3

এদিকে, মেট্টোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, এটি ইসলামপন্থিদের কাজ বলে পুলিশের ধারনা। হামলার পরে রাতে বার্মিংহামে রাতভর অভিযান চালিয়ে সন্দেহভাজন ৭জনকে পুলিশ আটক করেছে। হামলাকারী এমআই সিক্স এর কাছে পরিচিত এবং ইসলামি উগ্রপন্থায় অনুপ্রাণিত বলা হলে পুলিশ তার পরিচয় প্রকাশ করে নি।

হামলার কারণে আহতদের মধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নাগরিকরা রয়েছেন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে হামলার কারণে আহতদের সহমর্মিতা জানিয়েছেন এবং সেসব দেশের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে ব্রিটিশ সরকারের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয়েছে।

পাকিস্তানি যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে লন্ডনে পাকিস্তান হাইকমিশন ঘেরাও

লন্ডনঃ লন্ডন্থ পাকিস্তান হাইকমিশন ঘেরাও করে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে ব্রিটেনে বসবাসরত বাংলাদেশিরা।2 বুধবার ২২মার্চ লন্ডন সময় বিকেল চারটা থেকে সন্ধ্যে ছয়টা পর্যন্ত  সাউথ ওয়েস্ট লন্ডনের ৩৪-৩৬ লোন্ডেস স্কয়ারে পাকিস্তান হাইকমিশনের সামনে অবস্থান করে প্রতিবাদকারীরা বিভিন্ন দাবি জানান। তাঁরা ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশে গণহত্যার জন্যে দায়ী ১৯৫জন চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীকে বিচারের জন্যে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর, পাকিস্তানে আশ্রয় নেয়া বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনীদের বাংলাদেশের কাছে তুলে দেওয়া, পাঁচ‘শ হাজার পাকিস্তানী (বিহারী) নাগরিককে বাংলাদেশ থেকে পাকিস্তানে ফেরত নেয়া, তৎকালীন পাকিস্তানের অংশে থাকা বাংলাদেশের ন্যায্য হিস্যা ফেরত, মুক্তিযুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্থ নির্যাতিত পরিবারের সদস্যদের ক্ষতিপূরন প্রদান,পাকিস্তানের পৃষ্টপোষকতায় গড়ে উঠা উগ্রবাদী জঙ্গিসংগঠন গুলোকে দমন এবং বেলুচিস্তানে গণহত্যা বন্ধের দাবীতে বৃটেনে বসবাসরত সর্বস্থরের প্রবাসী যুদ্ধাপরাধ বিচারমঞ্চ ইউকে, একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মুল কমিটি যুক্তরাজ্য শাখা, গণজাগরণ মঞ্চ ইউকে, প্রজন্ম একাত্তর, ও  বাংলাদেশ হিউম্যান রাইট কাউন্সিল ইউকে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে বৃটেনের বিভিন্ন শহর থেকে ব্যানার ফেষ্টুন নিয়ে প্রতিবাদ কারীরা সমবেত হয়। যুদ্ধাপরাধ বিচারমঞ্চ ইউকের প্রেসিডেন্ট সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী ড. আনিছুর রহমান আনিছের সঞ্চালনায় অ1নুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটি‘র কেন্দ্রীয় সদস্য আনসার আহমেদ উল্লাহ, গণজানরণ মঞ্চ যুক্তরাজ্যের মুখপাত্র অজয়ন্তা দেব রায়, যুদ্ধাপরাধ বিচার মঞ্চের সিনিয়র সহসভাপতি সরদার বাতিরুল হক, ওয়েষ্ট লন্ডন আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী হাজী আব্দুল হান্নান, আওয়ামীলীগ নেত্রী রাহেলা শেখ, যুক্তরাজ্য বঙ্গবন্ধু পরিষদের সেক্রেটারী আলিমুজ্জামান, শেখ কামাল স্মৃতি সংসদের সভাপতি আলতাফুর রহমান চৌধুরী মিতা. গণজাগরণ মঞ্চের, সিন্তিয়া আরেফিন, সাংবাদিক শারমিন ভূ্ট্টু, সাইফ মিঠু, নূরুল ইসলাম, রাকু ঘোষ, শাফি নেওয়াজ, ইঞ্জিনিয়ার মিফতা ইসলাম, সাংবাদিক শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল, সাংবাদিক ফজলুল হক প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে গণহত্যার সাথে জড়িত ১৯৫জন পাকিস্তানী চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীকে বাংলাদেশের কাছে বিচারের জন্যে হস্তান্তর, বাংলাদেশের ন্যায্য হিস্যা ফেরত, ও পাকিন্তানের পৃষ্ঠপোষকতায় গড়ে উঠা উগ্রবাদী জঙ্গি সংগঠন গুলোর কার্যক্র বন্ধ করার দাবি জানিয়ে বলেন, এসব সংগঠনের সদস্যরা পাকিস্তানসহ সমগ্র সাউথ এশিয়ার জন্যে হুমকী হয়ে দাড়িয়েছে।  এসব সংগঠনের দ্বারা  শুধু পাকিস্তানই নয়  প্রতিবেশী ভারত এবং বাংলাদেশ  আক্রান্ত হচ্ছে। বাংলাদেশে আটকে পড়া পঞ্চাশ হাজার বিহারীকে এবছরের মধ্যে ফিরিয়ে নেবার দাবি জানান বক্তারা। বক্তারা বলেন, ১৯৭১ সালে পাকিস্তান বাহিনী যে ভাবে বাংলাদেশে গণহত্যা চালিয়েছিল ঠিক এইকই কায়দায় বেলিস্থানে নিরপরাধ মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে। তাঁরা এসব হত্যাকাণ্ড অবশ্যই বন্ধ করার দাবি জানান। সমাবেশ শেষে প্রতিবাদকারীরা  লন্ডনে নিযুক্ত পাকিস্তানের হাইকমিশনার সাঈদ ইবনে আব্বাস বরাবরে এসব দাবির পক্ষে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন। স্মারকলিপিটি গ্রহন করেন লন্ডনস্থ পাকিস্তান মিশনের  প্রেস উইংয়ের কর্মকর্তা মনির আহমদ।

ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সামনে গোলাগুলি।।পুলিশ কর্মকর্তা ছুরিকাহত

লন্ডন, ২২ মার্চ: হাউস অব কমন্সের অধিবেশন চলার সময় ব্রিটিশ পার্লামেন্টের বাইরে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়েছে এক আততায়ী। পরে ওই আBrit 2ততায়ী পুলিশের গুলিতে আহত হয়েছেন। Brit Parএদিকে অপর এক খবরে বলা হয়েছে, ব্রিটিশ পার্লামেন্টের বাইরে এক আততায়ী ছুরি হাতে হামলার চেষ্টা চালায়। পরে পুলিশের গুলিতে ওই ব্যক্তি আহত হয়েছেন।
আজ বুধবার হাউস অব কমন্সের নেতা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন তিনি প্রচণ্ড আওয়াজ শুনেছেন। এদিকে রয়টার্সের একজন আলোকচিত্রী প্রায় এক ডজন আহত মানুষ তিনি দেখেছেন।

দেশটির পার্লামেন্টের এক কর্মকর্তা জানান, পার্লামেন্টের বাইরে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ কারণে পার্লামেন্ট ভবন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। হাউস কমন্সের অধিবেশন স্থগিত করা হয়েছে। পার্লামেন্ট সদস্যদের নিজ নিজ কার্যালয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

হযরত আলাউদ্দিন সিদ্দিক (রা:) স্মরণে ইসালে সওয়াব মাহফিল

লন্ডন, ২১ মার্চ: পীর-ই-তারিকত হযরত পীর আলাউদ্দিন সিদ্দিক (রা:) স্মরণে ইসালে সওয়াব মাহফিলের আয়োজন করেছে জামিয়া নুরুল-উল-কোরআন সানা ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশান। শনিবার ইলফোর্ড গ্রীন লেনে সানা ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের নিজস্ব মসজিদ ভবনে আয়োজিত মাহফিলের বৃটেনের খ্যতনামা মাওলানারা ইসলামিক আলোচনা পেশ করেন। এ সময় বক্তারা কোরআন ও হাদিসের ভিত্তিতে জীবন গড়ার আহবান জানান। এছাড়া মসজিদ বিল্ডিং ক্রয়ের জন্য প্রায় কয়েকশ হাজার পাউন্ড সংগ্রহে সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানানো হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে আলোচনা পেশ করেন মাওলানা মো: আব্দুল মালিক। কারী শের মোহাম্মদ, হাজী ফরিদ আহমদ ও মতলব আহমেদের তত্ববধানে আয়োজিত মাহফিলে আলোচনায় আরো অংশ নেন মাওলানা ইজাজ আহমেদ নারবি, মাওলানা সাইদ তারিক মাসুদ, নাজিম হোসাইন সিদ্দিকি, কারী তারিক মাহমুদ প্রমুখ। মাহফিলে আলোচনার পাশাপাশি ইসলামিক হামদ ও নাত পরিবেশিত হয়। আলোচনা শেষে সকল মুসলিম ওম্মার শান্তি কামনায় দোয়া ও মোনযাত করেন। মসজিদ কমিটির মেম্বার আরশাদ মির্জা, হাজী সোহেল, হাবিবুর রহমান, হাজী মো: ফরিদ আহমদ সকলকে মুক্ত হস্তে দান করার আহবান জানান।

নবীগঞ্জে শীর্ষ ডাকাত গ্রেফতার

রাকিল হোসেন নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা: নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জ ফাঁড়ীর পুলিশ শীর্ষ ডাকাত ও একাধিক মামলার পলাতক আসামী তোয়েল মিয়া (৩২)-কে গ্রেফতার করেছে। ধৃত তোয়েল উপজেলার বড় ভাকৈর গ্রামের ফটিক মিয়ার পুত্র । পুলিশ জানায় তোয়েলের নেতৃত্বে উপজেলার নবীগঞ্জ-কাজীর বাজার সড়কসহ বিভিন্ন সড়কে রোড ডাকাতি সংঘটিত হতো। ইতিমধ্যে অনেক ডাকাতকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত রবিবার রাতে ইনাতগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ীর এসআই ধর্মজিৎ সিনহা সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কাজীর বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করেন। এসআই ধর্মজিৎ সিনহা সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,ধৃত তোয়েল মিয়া এলাকায় চিহিৃত ডাকাত। তার বিরুদ্ধে নবীগঞ্জ থানায় একাধীক মামলা রয়েছে। ইতিমধ্যে চিহিৃত ডাকাতদের গ্রেফতার করা হয়েছে। বর্তমানে আইন শৃংখলা ভাল। তোয়েলকে নবীগঞ্জ থানার মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Scroll To Top

Design & Developed BY www.helalhostbd.net