শিরোনাম

Daily Archives: ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭

বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক সালেহ চৌধুরী শেষ নিদ্রায় নিজ গ্রামে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন হয়েছে প্রবীণ সাংবাদিক ও বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা সালেহ চৌধুরীর

রবিবার (৩ সেপ্টেম্বর) বাদ যোহর মরহুমের নিজ গ্রাম সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার গচিয়া বাজার মাঠে তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় বিপুল মানুষের সমাগম ঘটে। জানাজা শেষে গ্রামে পারিবারিক গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকায় মারা যান সাংবাদিক সালেহ চৌধুরী। সেখানে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় প্রথম জানাজা ও জাতীয় প্রেসক্লাবে দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।
সাংবাদিক সালেহ চৌধুরীর জানাজায় উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ মুহিবুর রহমান মানিক, সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক সাবিরুল ইসলাম, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম. এনামুল কবির ইমন, দিরাই উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান তালুকদার, মুক্তিযোদ্ধা বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু, উপজেলা চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক, সুনামগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার ও ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি আবু সুফিয়ান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক সদস্যসচিব মালেক হুসেন পীর, অভিনেতা ফজলুল কবির তুহিন প্রমুখ।জানাজার আগে তার মরদেহে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয় বিভিন্ন সংগঠন ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে। পরে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়।
সাংবাদিক সালেহ চৌধুরী স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালে ৬ ডিসেম্বর সুনামগঞ্জে যে অনন্য শহীদ মিনার নির্মিত হয় তার নক্সাকার ছিলেন। সবুজ জমিনে লালবৃত্তের উপরে লেখা ‘যাদের রক্তে মুক্ত এ দেশ’ তার দেওয়া স্লোগান।এছাড়াও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘অপরাজেয় বাংলার’ নামকরণও তিনি করেছেন। বর্ণাঢ্য জীবনের অধিকারী সাংবাদিক সালেহ চৌধুরী যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে গঠিত সেক্টরস কমান্ডার ফোরামের উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

বাংলাদেশে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ে লন্ডনে প্রবাসী বাংলাদেশী কমিউনিটির করণীয় শীর্ষক সেমিনার

লন্ডনঃ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে পাকিস্থান বাহিনী কর্তৃক গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশী কমিউনিটির করণীয় শীর্ষক এক সেমিনার গতকাল ৩রা সেপ্টেম্বর রোববার বিকেলে ইষ্ট লন্ডনের চার্চহীল কলেজ মিলনায়তনে অনুষ্টিত হয়। যুক্তরাজ্য ঘাতক-দালাল নির্মুল কমিটি আয়োজিত সেমিনারে কীনোট স্পীকার হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট মানবাধিকার নেতা ও ঘাতক-দালাল নিমূল কমিটির কেন্দ্রীয় সভাপতি সাংবাদিক শাহরিয়ার কবীর। কিনোট স্পীকারের বক্তব্যে সাংবাদিক শাহরিয়ার কবীর বলেন নাৎসী বাহিনী কর্তৃক গণহত্যা সহ বিশ্বব্যাপী প্রতিটি গণহত্যার আন্তর্জাতিক ভাবে স্বীকৃত হলেও বাংলাদেশে যেখানে তিন মিলিয়ন মানুষকে হত্যাকরা হয় তার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি নেই। বিশ্ববাসী বিষয়টি জানলেও ১৯৭৫পরবর্তিতে এবিষয়ে কোন কুটনৈতিক তৎপরতা হয়নি, বরং ৭৫ পরবর্তি সরকার গুলো বাংলাদেশকে পাকিস্তানী ভাবধারায় ফিরিয়ে নিতে সচেষ্ট ছিল।
বাংলাদেশে মানবতাবিরুধী অপরাধের বিচার হচ্ছে, শীর্ষ অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনা হয়েছে তার পরেও কথা থেকে যায়, যেসব মানবতা বিরুধী অপরাধী মারা গেছে তাদের বিচারের আওতায় আনা যায়নি আইন করে এদেরও বিচার নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি আহবান জানান তিনি। তিনি বলেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এমন আইন রয়েছে, ইচ্ছে করলে যে কেহ প্রমান সহ এসব বিষয়ে মামলা করতে পারে। তিনি আরো বলেন এখনও আমরা যুদ্ধাপরাধী দল হিসেবে জামাতের বিচার করতে পারিনি, মানবতা বিরুধী সংগঠন গুলোকে নিষিদ্ধের দাবী জানান। যুক্তরাজ্য ঘাতক-দালাল নির্মুল কমিটির অনারারী প্রেসিডেন্ট সাংবাদিক ইসহাক কাজলের সভাপতিত্বে ও নির্বাহী প্রেসিডেন্ট সৈয়দ এনামুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রবীন সাংবাদিক ঘাতক-দালাল নির্মুল কমিটির কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা আব্দুল গাফফার চৌধুরী, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক নির্মুল কমিটির উপদেষ্টা ও যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুল গাফফার চৌধুরী বলেন মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস যাতে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম জানতে তার ব্যবস্থা সরকারী ভাবে করতে হবে। দেশের মানুষ যাতে ধর্মান্ধতা ও কুসংস্কারের দিকে ধাবিত না হয় সেলক্ষ্যে একমুখী শিক্ষা ব্যবস্থা জরুরী। বৃটেনে পালিয়ে থাকা ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী চৌধুরী মইনুদ্দিনকে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে দন্ড কার্যকর করতে সরকারকে আরো উদ্যোগী হওয়ার আহবান জানান তিনি। পরবর্তিতে প্রশ্নউত্তর পর্বে অংশ নেন ঘাতক-দালাল নির্মুল কমিটির সহসভাপতি সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পুষিপতা গুপ্তা, গণজাগরণ মঞ্চের অজয়ন্তা দেব রায়, সাবেক কাউন্সিলার ও নির্মুল কমিটির উপদেষ্টা নুরুদ্দিন আহমদ, মিঃ স্মীথ ব্যাকার, শাহানা আখঞ্জি, প্রমুখ।

Scroll To Top

Design & Developed BY www.helalhostbd.net