শিরোনাম
বৈশাখী মেলা বাংলা টাউনে ফিরিয়ে আনায় ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

বৈশাখী মেলা বাংলা টাউনে ফিরিয়ে আনায় ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

লন্ডনঃ বৈশাখী মেলাকে ব্রিকলেনে ফিরিয়ে আনায় টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল কর্তৃপক্ষের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে একাত্তরের ঘাতক-দলাল নির্মূল কমিটি ইউকে। সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে নির্মূল কমিটির নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইসহাক কাজল, সহ-সভাপতি হরমুজ আলী, সৈয়দ এনামুল ইসলাম, মাহফুজা রহমান তালুকদার, জেনারেল সেক্রেটারী সৈয়দ আনাছ পাশা, এ্যাসিসটেন্ট জেনারেল সেক্রেটারী জামাল আহমদ খান, কোষাধ্যক্ষ ঝলক পাল, সহ-কোষাধ্যক্ষ শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল, অর্গেনাইজিং সেক্রেটারী রুবী হক, আহাদ চৌধুরী বাবু, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পুষ্পিতা গুপ্তা, ইনফরমেশন এন্ড রিসার্চ সেক্রেটারী মতিয়ার চৌধুরী, প্রেস এন্ড পাবলিকেশন সেক্রেটারী সায়েম চৌধুরী ও এনামুল হক, নির্বাহী সদস্য হিফজুর রহমান খান, সৈয়দ এলাহি হক শেলু,গোলাম মোস্তফা চৌধুরী, আনজুমানয়ারা অঞ্জু, নিলুফা ইয়াসমিন হাসান,স্মৃতি আজাদ, আলী আকবর চৌধুরী, শাহ তোফায়েল আহমদ, ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য আনসার আহমেদ উল্লাহ। বিবৃতিতে ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির নেতৃবৃন্দ বলেন ব্রিটেনে বাঙালি কমিউনিটি ও বাংলাটাউনের ব্যবসা বাণিজ্যকে প্রমোট করার লক্ষ্যে এখান থেকেই যাত্রা শুরু হয়েছিল বৈশাখী মেলার। আর এ কারণে যেমন বাংলা টাউনের ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ঘটেছে তেমনি ব্রিটেনে বাঙালিদের ঐতিহ্যের স্মারক বাংলাটাউন ব্রিটেনের বহুজাতিক সমাজে আলাদা পরিচিতি পেয়েছে।

তবে এখানে বৈশাখী মেলার শুরু থেকেই দল ধর্মের দোহাই তোলে এর বিরোধিতা করে আসছে। প্রতিবছর মেলার সময় এদের মেলাবিরোধী লিফলেট বিতরণ করতে দেখা যায়। এই মেলার মাধ্যমে ব্রিটেনে বেড়ে ওঠা নবপ্রজন্ম যেমন শেকড়ের সন্ধান পাবে অন্য দিকে বাংলা টাউনের ব্যবসা বানিজ্যের প্রসার ঘটবে। বৈশাখী মেলা কোন হিন্দুয়ানী ক্যালচার নয়, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে বিশ্ববাঙ্গালীরা বাংলা ক্যালেন্ডারের প্রথম দিন হিসেবে পালন করে আসছেন হাজার হাজার বছর ধরে। মুসলিম শাসক মোগল সম্রাট আকবরের সময় থেকে বাঙালিরা প্রধান উৎসব হিসেবে পহেলা বৈশাখ পালন করে আসছেন।

Scroll To Top

Design & Developed BY www.helalhostbd.net